বাবুগঞ্জে ভাগ্নের ধাক্কায় মামার মৃত্যু !

নিজস্ব প্রতিনিধিঃবরিশালের বাবুগঞ্জে মায়ের রেখে যাওয়া স্বর্নাংকার ভাগাভাগি নিয়ে মামা -ভাগিনার মারামারি ছাড়াতে গিয়ে ভাগিনার ধাক্কায় মামা হারুন অর রশিদ এর (৫৫) মৃত্যু হয়েছে।
এ ঘটনাটি ঘটেছে গত মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টায় উপজেলার  মাধবপাশা ইউনিয়নের ৮নং ওর্য়াডের মেঘিয়া গ্রামের হারুন সিকদারের বাড়িতে।

এয়ারপোর্ট থানার ওসি কমলেস চন্দ্র হালদার জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে মাধবপাশা ইউনিয়নের মেঘিয়া গ্রামে কেরামত সিকদারের স্ত্রী মৃত্যু হলে তার রেখে যাওয়া একটি স্বর্নের আংটি মেয়ে মোসাঃ রাশিদার কাছে গচ্ছিত ছিল। ওই আংটি নিয়ে মামা -ভাগ্নের মধ্যে বিরোধ চলে আসছে।

গত মঙ্গলবার বিকালে হারুন অর রশিদের ভগ্নিপতি ফারুক ফকির ও মোশারফসহ স্থানীয়রা একটি শালিস  বৈঠকে বসে। শালিস বৈঠক চলাকালিন সময় ভাগিনা মোঃ হাচান বড় মামা জাফর কে ঘুষি মারলে শালিস বৈঠক পন্ডুল হলে দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ সময় মামা-ভাগিনাদের মধ্যে মারামারি ছাড়াতে গেলে ভাগিনা হাচান ও শিপন  মোঃ হারুর অর রশিদ সিকাদরকে চরথাপ্পর মারলে তিনি অসুস্থ হয়ে মাঠিতে লুটে পড়ে।
স্থানীয়রা এ্যান্বুলেন্স এনে মোঃ হারুন অর রশিদ সিকদারকে চিকিৎসার জন্য বরিশাল হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যায়।
সংবাদ পেয়ে এয়ারপোর্ট থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে  বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ  হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করেন।

এদিকে নিহত হারুন অর রশিদের বড় ভাই জাফর সিকদার জানান, তার মেঝ ভাই হার্টের রোগী থাকায় মারামারি ছাড়াতে গিয়ে ষ্টোক  তিনি মারা গেছেন।
এ ব্যাপারে এয়ারপোর্ট থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here