৪০ ফুট উঁচু ব্রিজ থেকে ফেলে দেয়ার পরও বেঁচেছিল শিশুটি

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি:সাতক্ষীরার আশাশুনিতে ৪০ ফুট উঁচু ব্রিজের উপর থেকে ফেলে এক নবজাতককে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, এতো উপর থেকে ফেলে দেয়ার পরও বেঁচেছিল শিশুটি। তবে শেষ পর্যন্ত তাকে আর বাঁচানো যায়নি। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শিশুটি মারা যায়।

মঙ্গলবার সকালে উপজেলার কুল্যা ইউনিয়নের গুনাকরকাটি ব্রিজ থেকে তাকে ফেলে দেয় কে বা কারা।

স্থানীয়রা জানান, সকালে ব্রিজের নিচে নদীর চরে একটি শিশুকে পড়ে থাকতে দেখেন পথচারীরা। শিশুটি তখনও জীবিত ছিল। পরে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যানকে বিষয়টি জানানো হয়। তিনি শিশুটিকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শিশুটি মারা যায়।

আশাশুনির কুল্যা ইউপি চেয়ারম্যান আবুল বাছেত হারুন চৌধুরী জানান, গুনাকরকাটি ব্রিজের উপর থেকে ফুটফুটে ওই নবজাতককে নদীর চরে ফেলে দেওয়া হয়। অনেক উপর থেকে ফেলে দেওয়ার কারণে তার মাথা ফেটে রক্তক্ষরণ হয়। তাকে উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুর ১টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

আশাশুনি উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান অসীম চক্রবর্তী জানান, শিশুটির সুস্থতার জন্য সব ধরনের চেষ্টা অব্যাহত ছিল। কে বা কারা শিশুটিকে ব্রিজ থেকে ফেলে হত্যা করেছে তা জানা যায়নি। বিষয়টি স্থানীয়ভাবে খোঁজ খবর নেওয়া হচ্ছে।

আশাশুনি থানার ওসি মোহাম্মদ গোলাম কবির বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, কারা এই কাজ করেছে সে বিষয়ে খোঁজখবর নেয়া হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here