চাকরির প্রলোভনে মেয়েদের বাসায় আটকে পতিতাবৃত্তি, গ্রেফতার ১

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:চট্টগ্রাম নগরীর পাহাড়তলীতে ভাড়া বাসায় আটকে রেখে পতিতাবৃত্তির অভিযোগে শাহনাজ বেগম নামে এক নারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ সময় আটকে রাখা আরো তিন মেয়েকে উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতার শাহনাজ বেগম ভুজপুর থানার হিয়াকু বাজার মোহাম্মদপুরের জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী। রোববার (১১ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৪টায় বাঁচা মিয়া রোডের একটি বাড়ির ৪র্থ তলার বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে পাহাড়তলী থানার ওসি হাসান ইমাম জানান, গত ৩ মাস ধরে ওই বাসায় মেয়েদের আটকে রেখে পতিতাবৃত্তি করতে বাধ্য করছিল শাহনাজ বেগম ও তার স্বামী জাহাঙ্গীর আলম। গতকাল সেই বাসায় চিৎকার শুনে ৯৯৯-এ ফোন দেয় পার্শ্ববর্তী এক ব্যক্তি। পরে আমরা গিয়ে তিন মেয়েকে উদ্ধার করি। এছাড়া শাহনাজ বেগমকে গ্রেফতার করা হয়। তবে তার স্বামী জাহাঙ্গীর পালিয়ে যায়।

জিজ্ঞাসাবাদে শাহনাজ জানায়, তার স্বামী দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে কৌশলে মেয়েদের তাদের বাসায় নিয়ে আসে। পরে সে আর তার স্বামী মিলে তাদের জোরপূর্বক পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করে। তারা প্রায় ৩ বছর ধরে এই কাজের সঙ্গে জড়িত এবং তারা কিছুদিন পরপর বাসা পরিবর্তন করে বিল্ডিংয়ের মালিক অথবা বিল্ডিংয়ের কেয়ারটেকারের সঙ্গে সখ্যতা করে এই কাজ পরিচালনা করে আসছিল। এ বিষয়ে পাহাড়তলী থানায় মানবপাচার আইনে মামলা রুজু হয়েছে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here