মায়ের সম্ভ্রম বাঁচাতে গিয়ে মাথার চুল হারালো ছেলে

সাভার প্রতিনিধি:সাভারে মায়ের সম্ভ্রম রক্ষা করতে গিয়ে মাশুল দিতে হয়েছে ছেলেকে। অভিযুক্তকে বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে চাঁদাবাজদের হাতে নির্যাতনের শিকার ও মাথার চুল হারিয়েছে সে।

এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে নির্যাতিত ছেলের মা লিখিত অভিযোগ করেছেন। অভিযুক্তরা হলেন- সাভারের ভাটপাড়া এলাকার চাঁদাবাজ আজিজুল হাকিম ও তার গাড়িচালক শামসুল ইসলাম।

শনিবার সকালে সাভার থানার এসআই আলমগীর হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ভুক্তভোগী মা সাভারের ভাটপাড়া এলাকায় মানুষের বাসায় কাজ করতেন। তার ছেলে একটি স্কুলের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, কয়েসমাস ধরেই স্বামী পরিত্যক্তা ওই নারীকে মোবাইলে কুপ্রস্তাব দিত এবং রাস্তায় উত্ত্যক্ত করত অভিযুক্তরা। পরশু সন্ধ্যায় ভুক্তভোগীর বাসায় এসে তাকে জাপটে ধরে। ওই সময় ভুক্তভোগী চিৎকার করলে রাস্তা থেকে এসে তার ছেলে ওই গাড়িচালককে বাঁশ দিয়ে আঘাত করে। ওই ঘটনার জেরে শুক্রবার ভুক্তভোগীর ছেলেকে নিজের অফিসে তুলে নিয়ে যায় হাকিম ও তার সঙ্গীরা। পরে তিন ঘণ্টা আটকে রেখে তাকে মারধর ও মাথার চুল কেটে দিয়ে তার মায়ের কাছে ১০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। ছেলেকে মুক্ত করতে মা ধার করে প্রথমে ২৩০০ ও পরে ২৪০০ টাকা দেন। এতেও পুরো টাকা আদায় না হলে ছেলের মোবাইল কেড়ে নেয় অভিযুক্তরা।

জানা গেছে, অভিযুক্ত হাকিম ওই এলাকায় মাদক সিন্ডিকেট, বিচারের নামে জরিমানা আদায়, চাঁদাবাজিসহ নানা অপকর্ম করে এলাকায় প্রভাব বিস্তার করে। তার নিজস্ব বাহিনী রয়েছে। হাকিমের প্রভাবে অপরাধে জড়িয়ে পড়েছে তার গাড়িচালকও।

অভিযুক্ত আজিজুল হাকিম বলেন, আমি চুল কাটি নাই, মাতবররা কাটছে। সে মারামারি করেছিল তাই তার বিচার করা হয়েছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই আলমগীর হোসেন বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি নিয়ে প্রাথমিক তদন্ত চলছে। এরপর মামলা নেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here