দেশের আকাশে দেখা যাচ্ছে একসঙ্গে তিন মহাজাগতিক ঘটনা

নিউজ ডেস্ক:আজ একইসঙ্গে ৩টি বিরল ঘটনার সাক্ষী হতে যাচ্ছে পুরো বিশ্ব। জানা গেছে, এই বছরের প্রথম পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ, সুপার মুন ও সুপার ব্লাড মুন এই তিনটি মহাজাগতিক ঘটনা দেখা যাবে আজ। বাংলাদেশের যেসব জেলায় আকাশ পরিষ্কার রয়েছে সেসব এলাকা থেকে দেখা যাচ্ছে বিরল মহাজাগতিক এই দৃশ্য।

বাংলাদেশের আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, পূর্ণ এই চন্দ্রগ্রহণ শুরু হয়েছে ঢাকার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টা ৪১ মিনিটের দিকে। গ্রহণ শেষ হবে সন্ধ্যা ৭টা ৫১মিনিট ৫৮ সেকেন্ডে। আকাশ পরিষ্কার থাকলে বাংলাদেশ থেকে চন্দ্র উদয়ের পর থেকে চন্দ্রগ্রহণ শেষ হওয়া পর্যন্ত গ্রহণটি দেখা যাবে। তবে এই পূর্ণ চন্দ্রগ্রহণ এবং সুপার মুন যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া ও পূর্ব এশিয়া থেকে দেখা যাবে।

মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থার (নাসা) বলছে, ২০২১ সালের প্রথম চন্দ্রগ্রহণ মোট ৩ ঘণ্টা স্থায়ী হবে। এর মাঝেই আংশিক ও পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ চলবে। পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ দেখা যাবে ১৪ থেকে ১৫ মিনিট।

এদিকে ২০২১ সালে প্রথমবার ব্লাড মুন দেখা যাবে আজ। এটিই এবছরের প্রথম ও শেষ ব্লাড মুন। এরপর ২০২২ সালে আরো একটি ব্লাড মুন দেখা যাবে। তা ২০২২ সালের ১৫ ও ১৬ মে দেখা যাবে।

জানা গেছে, দক্ষিণপূর্ব এশিয়া, অস্ট্রেলিয়া, উত্তর আমেরিকা, দক্ষিণ আমেরিকা, প্রশান্ত মহাসাগর, ভারত মহাসাগর, আটলান্টিক মহাসাগর, অ্যান্টার্কটিকা থেকে পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ দেখা যাবে।

অন্যদিকে বলা হচ্ছে, হিউস্টন, হনুলুলু, লস অ্যাঞ্জেলস, ম্যানিলা, মেলবোর্ন, স্যান ফ্রান্সিসকো, সিওল, সাংহাই টোকিও থেকে থেকে ব্লাড মুনের বিরল দৃশ্য দেখা যাবে। আংশিক ব্লাডমুন দেখা যাবে, ব্যাংকক, শিকাগো, ঢাকা, মন্ট্রিল, নিউইয়র্ক, টরেন্টো থেকে।

প্রতি পূর্ণিমাতেই চাঁদ পৃথিবীকে মাঝখানে রেখে সূর্যের বিপরীতে অবস্থান করে। কিন্তু প্রতি পূর্ণিমায় চন্দ্রগ্রহণ ঘটে না। কারণ, চন্দ্রগ্রহণ ঘটতে হলে চাঁদ, সূর্য ও পৃথিবীকে অবশ্যই একই সরলরেখায় ও একই সমতলে থাকতে হবে। চাঁদের কক্ষতল পৃথিবীর কক্ষতলের সঙ্গে গড়ে ৫ ডিগ্রী ৯ মিনিট কোনে থাকে। ফলে প্রতি পূর্ণিমাতেই চাঁদ, সূর্য ও পৃথিবী একই সমতলে থাকলেও একই সরলরেখায় আসতে পারে না। চন্দ্রগ্রহণ ঘটতে হলে চাঁদ, সূর্য ও পৃথিবীকে অবশ্যই একই সরলরেখায় ও একই সমতলে থাকতে হবে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here