শারীরিক সম্পর্কে রাজি না হওয়ায় রুমমেটকে হত্যার পর কেটে টুকরো

শারীরিক সম্পর্কে রাজি না হওয়ায় রুমমেটকে হত্যার পর কেটে টুকরো

নিউজ ডেস্কঃরুমমেটের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করতে চেয়েছিলেন। তিনি রাজি না হওয়ায় পরে তাকে হত্যা করেন তিনি। এরপর করাত দিয়ে তার দেহ কেটে টুকরো করেন। পরে সেই টুকরোগুলো স্যুটকেসে ভরেন। এমন ভয়াবহ হত্যাকাণ্ড ঘটানো দায়ে যুক্তরাজ্যে গ্যারিকা গর্ডন নামে ২৮ বছর বয়সী এক নারীকে ২৩ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। দ্য ইভেনিং স্ট্যান্ডার্ড জানিয়েছে, ২০২০ সালের ১৬ এপ্রিল বার্মিহামে ওই হত্যাকাণ্ড ঘটনা গর্ডন। তিনি তার ২৮ বছর বয়সী রুমমেট ফনিক্স নেটসকে চারবার ছুরি মেরে হত্যা করে। ফনিক্সকে হত্যার পর তার বন্ধুবান্ধব এবং আত্মীয়দের টেক্সট, ইমেইল এবং ভয়েজ ম্যাসেজের মাধ্যমে জানান তিনি লন্ডন চলে গেছেন। ভয়াবহ এই হত্যাকাণ্ডের প্রায় এক মাস পর কোলফোর্ডে একটি খনির পাশ থেকে গর্ডনকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে পুলিশ দুটি স্যুটকেসের ভেতর থেকে ফনিক্সের মরদেহের টুকরো উদ্ধার করে। আদালতে বিচারের মুখোমুখি হওয়ার আগেই নিজের দোষ স্বীকার করেন গর্ডন। মঙ্গলবার ব্রিস্টল ক্রাউন কোর্ট তার সাজা ঘোষণা করেন। সরকারি কৌঁসুলি অ্যান্ড্রু স্মিথ বলেন, ফনিক্স তার এক বন্ধুকে জানিয়েছিলেন যে গর্ডন তার সঙ্গে ‘যৌন সম্পর্ক স্থাপন’ করতে চায়। তবে তাতে রাজি না হওয়ায় গর্ডন ‘আগ্রাসী’ হয়ে ওঠেন বলেও জানিয়েছিলেন ফনিক্স। ফনিক্স গত বছরের ৭ এপ্রিলে ম্যাসেজের মাধ্যমে তার এক বন্ধুকে জানান, আমার রুমমেট আমার সঙ্গে যৌন সম্পর্ক করতে চায়। আমি হয়তো লন্ডন ফিরে আসবো। আমার ভয় করছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here