পৌর কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে তথ্য গোপন ও জাল সনদ দাখিলের অভিযোগ

ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃঝালকাঠির নলছিটি পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. পলাশ তালুকদারের বিরুদ্ধে মনোনয়নপত্রের সঙ্গে জমা দেওয়া অষ্টম শ্রেণির শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ জাল ও দুই মামলায় ৫ বছরের সাজার তথ্য গোপনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
এ ঘটনায় ওই কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে যুগ্ম জেলা জজ প্রথম ও নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করেছেন তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী মো. হুমায়ুন কবির।
শনিবার (৩ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১০টায় উপজেলার বাইপাস মোড়ে একটি ভবনের দোতলায় সংবাদ সম্মেলন করে এসব অভিযোগ তোলেন তিনি। এ সময় তিনি ওই কাউন্সিলরের গেজেট বাতিল করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান।
সংবাদ সম্মেলনে হুমায়ুন কবির বলেন, বর্তমান কাউন্সিলর পলাশ তালুকদার ঝালাকাঠির চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের সি/আর-৩০৮/২০০০(নল) চুরি মামলায় দুই বছরের ও জি/আর-১৬৭/১৯৯৯(নল) (ঝালকাঠি সেশন জজ আদালতের মামলা নম্বর-৬৩/২০০২) চাঁজাবাজি মামলায় তিন বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামি। এ তথ্য তিনি নির্বাচনী হলফনামায় গোপন করেছেন।
তিনি আরো বলেন, কাউন্সিলর পলাশ তালুকদার হলফনামার শিক্ষাগত যোগ্যতার কলামে অষ্টম শ্রেণি পাশ উল্লেখ করেছেন। মনোয়নপত্রের সঙ্গে তিনি জাল সনদপত্র সংযুক্ত করেছেন। সনদপত্রে থাকা সিদ্ধকাঠি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের স্বাক্ষরটিও জাল। পলাশ তালুকদার কোনদিন ওই বিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলেন না মর্মে প্রধান শিক্ষক আ. জলিল হাওলাদার প্রত্যায়নপত্র দিয়েছেন। এসব প্রমাণাদি নির্বাচন কমিশন, বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার ও ঝালকাঠি জেলা প্রশাসকের কাছে গত ৪ মার্চ রেজিস্ট্রি ডাকযোগে পাঠানো হয়েছে। এছাড়াও একই দিন নলছিটি পৌরসভা নির্বাচন-২০২১ এর রিটার্নি কর্মকর্তা ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ওয়াহিদুজ্জামান মুন্সির কাছে অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে। এরপরেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কাউন্সিলর পলাশ তালুকদারের গেজেট বাতিল করে আইনগত ব্যবস্থা না নেয়ায় তিনি (হুমায়ুন কবির) গত ২১ মার্চ আদালতে মামলা করেন।
সংবাদ সম্মেলনে প্রার্থী হুমায়ুন কবিরের ভাই
বেলায়েত হোসেন, আনোয়ার হোসেন খোকন, নির্বাচনী প্রচারকর্মী মো. মোস্তফা কামাল হাওলাদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here