স্ত্রীকে হত্যা করে নাটক সাজাতে গিয়ে ধরা খেলো স্বামী

নিজস্ব প্রতিনিধিঃরাজধানীর গুলশানের একটি বাসায় ‘নিহত’ স্ত্রী ঝিলিক আলমকে (২৩) প্রাইভেটকারে তুলে হাতিরঝিলে এসে সড়ক দুর্ঘটনার নাটক করার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামী সাকিবুল আলম মিশুর বিরুদ্ধে। শনিবার সকালে এ ঘটনা ঘটেছে।

বাসার সিসি ক্যামেরার ফুটেজে দেখা গেছে, চার ব্যক্তি ওই নারীর হাত-পা ধরে ঝুলিয়ে বাসার সিড়ি দিয়ে নামছে। এদিকে নিহত নারীর স্বজনরা তার স্বামীর বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ করেছেন। পরে নিহত স্ত্রীকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসার পর পুলিশ ওই ব্যক্তিকে আটক করে।

 

মিশু পুলিশকে জানায়, তাদের বাসা গুলশান-২ নম্বর সড়কের ৩৬ নম্বর রোডে। বাসা থেকে প্রাইভেটকার নিয়ে স্বামী-স্ত্রী বের হন। হাতিরঝিল আমবাগান এলাকায় রাস্তায় আইল্যান্ডের ওপর গাড়ি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ধাক্কা খেলে তিনি ডান হাতে সামান্য আঘাত পান এবং গাড়িতে থাকা তার স্ত্রী ঝিলিক আলম (২৩) গুরুতর আহত হন। আহত অবস্থায় তাকে ঢামেক হাসপাতাল নিয়ে আসলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। লাশ ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে।

গুলশান থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম বলেন, ওই নারীর স্বামীর আচরণ রহস্যজনক মনে হওয়ায় তাকে জেরা করা হয়। খোঁজ নিয়ে জানা যায় তার বাসা গুলশানে। এরপর সিসি ক্যামেরার ফুটেজ যাচাই বাছাই করে দেখা যায়, ঝিলিককে বাসা থেকেই অচেতন অবস্থায় বের করা হয়। এরপর স্বামী সাকিবুল আলম মিশুকে আটক করে হাতিরঝিল থানার পুলিশ। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। ওই নারীর শরীরের বিভিন্ন জায়গায় জখম রয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া। নিহত ঝিলিকের মা জানান, ঝিলিক ও মিশু ভালোবেসে ২০১৮ সালে বিয়ে করেন। কিন্তু প্রায়ই তার মেয়েকে নির্যাতন করা হতো।

নিহত ঝিলিকের দেবর ফাহিম সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ঝিলিকের বাসাতেই মৃত্যু হয়েছে। তবে তার ভাই কেন দুর্ঘটনার কথা বলেছেন, তা তার জানা নেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here