৩শ’ টাকার জন্য বৃদ্ধের কাঁধে জোয়াল

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:পরিবারের সদস্যদের মুখে খাবার তুলে দিতে বাধ্য হয়েই কাঁধে জোয়াল তুলে নিয়ে ক্ষেতের আলু উত্তোলনের কাজ করছেন দুই বৃদ্ধ। মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার যাত্রাপুর এলাকার মাঝের চর নামক জায়গায় এই চিত্র দেখা যায়।

দুই বৃদ্ধ হলেন- সদর উপজেলার পাঁচগাছী ইউনিয়নের উত্তর নওয়াবস গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল জব্বার (৭০) ও নূর ইসলাম (৬৫)।

তারা জানান, বর্তমানে এই বয়সের কেউ কাজ দিতে চায় না। করোনা পরিস্থিতিতে কাজও কম। তাই বাধ্য হয়ে ৩০০ টাকা দিনমজুরির এই কাজ করতে বাধ্য হয়েছি। কাজ না করলে পরিবারের সদস্যদের না খেয়ে থাকতে হবে।

গরু ছাড়া এভাবে কাঁধে জোয়াল টানা নিয়ে কথা হয় ওই এলাকার আরেক আলু চাষীর সঙ্গে। তিনি জানান, আলু তোলার খরচ কমানোর জন্য কৃষি শ্রমিকদের চুক্তি ভিত্তিক কাজ দেয়া হয়। তারা তাদের সুবিধা মতোই এ কাজগুলো করে থাকে। তবে এ কাজ যদি আমরা গরু দিয়ে করি তাহলে অনেক আলু নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা থকে। এটি একটি প্রাচীন পদ্ধতি।

কুড়িগ্রাম কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক মোঃ মঞ্জুরুল হক জানান, এটি অনেক আগের পদ্ধতি। বর্তমানে নতুন নতুন প্রযুক্তি রয়েছে।

তবে বৃদ্ধের কাঁধে জোয়াল তোলার বিষয়টি শুনে দুঃখ প্রকাশ করে জানান, বিষয়টি আপনার মাধ্যমেই শুনলাম। তবে এ কাজটি গরু দিয়েও করা যায়।

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিলুফা ইয়াসমিন বলেন, জমির ফসল তুলতে ডিজিটাল যুগে এখন অনেক ধরণের পদ্ধতি চালু হয়েছে। ওই দুই বৃদ্ধ যদি স্বেচ্ছায় কাজ করেন তাহলে বিষয়টি ভিন্ন। তারপরও আমরা বিষয়টি দেখবো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here