মোটরসাইকেল না দেওয়ায় খুন, আসামীর যাবজ্জীবন

ইকবাল হোসেন সুমন; নোয়াখালী :নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার আলাইয়াপুর ইউনিয়নে মায়ের দোয়া ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কশপ এর পরিচালক শহিদুল ইসলাম শিপন হত্যার ঘটনায় তার প্রতিষ্ঠানের কর্মচারী মো. ইমনকে যাবজ্জীবন কারাদ- দিয়েছে আদালত। একই সাথে তাকে ১০হাজার টাকা অর্থদ-ে দ-িত করা হয়েছে। ঘুরতে যাওয়ার জন্য মালিকের কাছে মোটরসাইকেল চেয়ে না পেয়ে ইমন এ হত্যাকা- করেছে বলে আদালত সূত্রে জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে এ রায় প্রদান করেন, নোয়াখালী দায়রা জজ আদলতের বিচারক সালেহ উদ্দিন আহমদ। যাবজ্জীবন প্রাপ্ত ইমন কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ থানার জায়কা ইউনিয়ন ৯নং ওয়ার্ড পানাহার এলাকার গোলাপ মিয়ার বাড়ীর আল আমিন মিয়ার ছেলে।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, হত্যাকা-ের কয়েকদিন আগে ঘুরাঘুরির জন্য ওয়ার্কশপের মালিক শহিদুল ইসলামের কাছে তার ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি চায় ইমন। কিন্তু মোটরসাইকেল না দিয়ে ইমনকে গালমন্ধ ও মারধর করে শিপন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে শিপনকে হত্যা করে মোটরসাইকেলটি নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করে ইমন। পরিকল্পনা অনুযায়ী গত ২০১৯সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি রাতের কোন একসময় রমনিরহাট বাজারে ওয়ার্কশপের ভিতরে ঘুমে থাকা শিপনকে হাতুড়ি দিয়ে জখম করে হত্যা করে মোটরসাইকেল ও মোবাইল নিয়ে পালিয়ে যায় ইমন।

সূত্র আরও জানায়, ওইদিন ভোরে মোটরসাইকেল নিয়ে কিশোরগঞ্জ যাওয়ার পথে কুমিল্লার চান্দিনার বানিয়াপাড়ায় দূর্ঘটনার কবলে পড়ে একটি পোল্ট্রি ফার্মের গুদামে মোটরসাইকেল রেখে পালিয়ে যায় ইমন। পরবর্তীতে পুলিশ কিশোরগঞ্জ তার বাড়ীতে অভিযান চালিয়ে ইমনকে গ্রেপ্তার করে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করে। হত্যার পরদিন নিহতের ভাই তৌহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে বেগমগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরবর্তী মামলাটি অধিকতর তদন্তের জন্য পিবিআইতে হস্তান্তর করা হয়।

রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী পাবলিক প্রসিকিউটর (পি.পি) গুলজার আহমেদ জুয়েল জানান, হত্যা মামলাটি বিচারের জন্য আদলতে প্রেরণ করা হলে আসামীর বিরুদ্ধে ওই অপরাধ বিচারার্থে আমলে নিয়ে পেনাল কোড এর ৩০২ ধারায় অপরাধের অভিযোগ গঠন করা হয়। বৃহস্পতিবার আসামীর উপস্থিতিতে শুনানি হয়। তার সঙ্গে খারাপ ব্যবহারের কারণে ক্ষোভ থেকে অপরাধটি সংঘটন ও ওইসময় তার বয়স ১৯ বছর থাকায় তা বিবেচনা করে সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদ-ের পরিবর্তে ইমনকে যাবজ্জীবন কারাদ- ও ১০হাজার টাকা অর্থদ- দিয়েছেন বিজ্ঞ বিচারক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here