মামলায় হাজিরা দিয়ে ফেরার পথে আক্রমণে আহত ৩

সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃসাতক্ষীরা আদালতে হাজিরা দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে আশাশুনির গদাইপুরে সড়কের উপর আটকে নির্মমভাবে পিটিয়ে ৩ জনকে মারাত্মক জখম করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে ৫ জনকে আটক করেছে। আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

গদাইপুর গ্রামের করিম মোল্যার পুত্র আঃ গফফারসহ একাধিক ব্যক্তি জানান, উপজেলার খাজরা ইউনিয়নের গদাইপুর গ্রামে হত্যা মামলা ১০৮/২০ এর ধার্যদিনে হাজিরা দিতে আসামিরা আদালতে যান। বিকাল ৩ টার দিকে আসামিরা মটর সাইকেল ও অন্য যানবাহনে বাড়ি ফিরছিল। গদাইপুর মৎস্য সেটের কাছে অহিদুল ইসলাম মোল্যার বাড়ির সামনে পৌছলে শিমুল, সবুজ, হাফিজুল, মফিজুল, হাসান, জামাল, রবিউল, বারিক, মেহদী হাসান, নাজমুল, মোস্তফা, রাসেল, শাহিন, কালামসহ ২০/২৫ জন আসামীদের বহনকারী সবশেষ মটর সাইকেল পথরোধ করে আটক করে।

এ সময় তারা মটর সাইকেলে থাকা জামসেদ মোল্যার পুত্র মোস্তাকিম, মৃত সামছুর সরদারের পুত্র মাসুদ রানা ও কুদ্দুছ সরদারের পুত্র হিমুকে কাপড় দিয়ে চোখ বেধে প্রকাশ্যে রামদা, কুড়াল, হাতুড়িসহ বিভিন্ন অস্ত্রশস্ত্র দিয়ে নির্মমভাবে মারপিট করে রক্তাক্ত জখম করে। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদেরকে একটি ভ্যানে উঠিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান শাহ নেওয়াজ ডালিমের বাড়ির কাছে পৌছে দেয়। খবর পেয়ে এএসআই মাহবুবসহ পুলিশ দল ঘটনাস্থলে পৌছে আহতদের উদ্ধার করে এ্যাম্বুলেন্সযোগে সাতক্ষীরা হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন।

পরে ওসি গোলাম কবিরসহ বহু পুলিশ ঘটনাস্থানে পৌছে মৃত সরবত মোল্যার পুত্র শিমুল(২৮) ও সবুজ (২৫), শহিদুল মোল্যার পুত্র নাজমুল (২২), আত্তাপ মোল্যার পুত্র মেহদী হাসান (২৩) ও মৃত আয়জদ্দিন মোল্যার পুত্র বারিক (৫৭) কে ঘটনাস্থান থেকে গ্রেফতার করেন।

এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।এব্যাপারে পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) গোলাম কবির জানান, আকটকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। আশাশুনিতে উপজেলা টাস্কফোর্স কমিটির সভায় বক্তব্য রাখছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর আলিফ রেজা এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here