মেহেন্দিগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থীর ভোট গণনায় জালিয়াতির অভিযোগ।

 মেহেন্দিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ- মেহেন্দিগঞ্জ পৌরসভার কাউন্সিলর নির্বাচনে ভোট গণনায় জালিয়াতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত শনিবার (৩০ জানুয়ারী) অনুষ্ঠিত হয় ওই পৌরসভার নির্বাচন। অভিযোগকারী সংরক্ষিত ০১ আসনের দুই প্রতিদ্বন্দী নারী কাউন্সিলর প্রার্থী রাজমানা ইসলাম (অটোরিক্সা মার্কা) ও আলেয়া বেগম (আনারস মার্কা)। তাদের দাবী ভোট গণনার সময় তাদের এজেন্ট কিংবা মনোনীত ব্যক্তিদের সামনে ভোট গণনা করা হয়নি। কেন্দ্রে এজেন্টের শত আপত্তি করা সত্বেও ভোট তাদের সামনে গণনা করা হয়নি। এছাড়াও তাদের ভোট নষ্ট দেখিয়ে পরাজিত করা হয়েছে বলে দাবী করেন তারা। সংরক্ষিত এই আসনে প্রায় ৭ শতাধিখ ভোট নষ্ট দেখানো হয়েছে। এই বিষয়ে তাৎক্ষণিক উপজেলা রিটার্ণিং কর্মকর্তার কাছে ভোট পুনঃগণনার আবেদন করেন দুই প্রার্থী। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, সংরক্ষিত চরহোগলা, সোনামুখি ও অম্বিকাপুর ওয়ার্ডের প্রিজাইডিং অফিসারগন অসৎ উদ্দেশ্য হাসিল করতে প্রতিদ্বন্দী মিতা রানী দাস (জবা ফুল মার্কা) কে সুবিদা দিতে এমন সুক্ষ কারচুপি করেন। এর ফলে প্রতিদ্বন্দী মিতা রানীকে অপর প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী রাজমানা ইসলাম’র প্রাপ্ত ভোটের চেয়ে ১০ ভোট বেশি দেখিয়ে বিজয়ী দেখান। ব্যালট গণনার মাধ্যমে অন্য প্রার্থীকে পরাজিত করার অভিযোগে ৩জন প্রিজাইডিং’র বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা করাসহ পূনরায় ভোট গ্রহনের জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন তারা। বিজয়ী প্রার্থী পান ১ হাজার ৪২২ ভোট। অন্যদিকে দ্বিতীয় স্থান অধিকারী রাজমানা ইসলাম পান ১ হাজার ৪১২ ভোট। তৃতীয় স্থান অধিকারী আলেয়া বেগম পান ১৩৭৬ ভোট। ফলাফলকে চ্যালেঞ্জ করে আবারও ভোট গণনার আবেদন জানান তারা। দ্বিতীয় বারের গণনায় প্রার্থী রাজমানা ইসলাম ও আলেয়া বেগম’র ভোট বেড়ে যাবে বলে আশাবাদী এই দুই প্রার্থী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here