মেহেন্দিগঞ্জে বিতর্কিত বক্তব্যে উপাধ্যক্ষ শহিদুল ইসলাম বিরুদ্ধে হাজার কোটি টাকার মানহানি মামলা

নিজস্ব প্রতিনিধিঃবরিশালের মেহেন্দিগঞ্জে স্থানীয় সাংসদ পঙ্কজ দেবনাথ আগামীতে দলীয় মনোনয়ন না পেলে আওয়ামী লীগও ক্ষমতায় আসবে না এমন বিতর্কিত বক্তব্যের জেরে পংকজ নাথের এক কর্মী উপাধ্যক্ষ শহিদুল ইসলামের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার কাজিরহাট থানা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান মিয়া বাদী হয়ে রোববার বরিশাল সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলাটি করেন। মামলা নং সি আর ২৬/২০২১ ইং। এই মামলার বিবাদী সহিদুল ইসলাম উপজেলার স্থানীয় সন্তোষপুর গ্রামের মৃত অব্দুল কাদেরের ছেলে এবং সরকারি পাতারহাট আরসি কলেজের উপাধ্যক্ষ। এছাড়া তিনি পঙ্কজ দেবনাথের অনুসারী বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। বাদী পক্ষের আইনজীবী মুনসুর আহম্মেদ এজাহারের বরাত দিয়ে জানান, গত ২৬ জানুয়ারি সঙ্গলবার মেহেন্দিগঞ্জ পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী আওলাদ হোসেন আমুর ডালিম মার্কার সমর্থনে উঠান বৈঠক আয়োজনে বিবাদী সহিদুল ইসলাম তার বক্তব্যে বলেন- ‘পঙ্কজ দেবনাথের মনোনয়ন শেখ হাসিনার হাতে না। বরং পঙ্কজ দেবনাথকে মনোনয়ন না দিলে আ’লীগ ক্ষমতায় আসতে পারবে না।’ বাদীর আর্জি এই বিতর্কিত বক্তব্যের মাধ্যেমে বিবাদী এমপি পঙ্কজ দেবনাথকে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উর্ধ্বে স্থান দেওয়ার সামিল। এছাড়া তিনি তার বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীকে কোনো প্রকার সম্মান না দিয়ে শুধু শেখ হাসিনা বলে উল্লেখ করে ধৃষ্টতা দেখিয়েছেন। এতে প্রধানমন্ত্রী এক হাজার কোটি টাকার মানহানি হয়েছে এবং বাদীর হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হচ্ছে। আইনজীবী এবং মামলার বাদী জিল্লুর রহমান মিয়া জানান, আদালতের বিচারক অভিযোগটি আমলে নিয়ে পরবর্তীতে আদেশের অপেক্ষায় রেখেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here