তিন ম্যাচ পর জয়ে ফিরল স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়নরা

স্পোর্টস ডেস্ক:কঠিন সময়ে আরও একবার বেরিয়ে এলো রিয়াল মাদ্রিদের সেরাটা। শুরুর স্নায়ু চাপ কাটিয়ে আক্রমণাত্মক ফুটবলে চেপে ধরলো দেপোর্তিভো আলাভেসকে। সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে তিন ম্যাচ পর জয়ে ফিরল স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়নরা। লা লিগার ম্যাচে শনিবার প্রতিপক্ষের মাঠে ৪-১ গোলে জিতেছে রিয়াল। জোড়া গোল করেন করিম বেনজেমা, একটি করে এদেন আজার ও কাসেমিরো। আলাভেসের গোলটি করেন রিয়ালের সাবেক স্ট্রাইকার হোসেলু। কী কঠিন সময়ই না যাচ্ছে রিয়ালের। কেউ না কেউ চোটের জন্য বাইরে থাকছেনই। তারওপর এবার করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে দলের সঙ্গে নেই কোচ জিনেদিন জিদান। মাঠের ফল ভীষণ হতাশাজনক। সব প্রতিযোগিতা মিলে সবশেষ পাঁচ ম্যাচে জয় কেবল একটি। লা লিগার শেষ তিন ম্যাচের দুটিতে ড্র করেছে প্রতিযোগিতার সফলতম দলটি। আথলেতিক বিলবাওয়ের বিপক্ষে ২-১ গোলে হেরে ছিটকে গেছে স্প্যানিশ সুপার কাপের সেমি-ফাইনাল থেকে। পরে একই ব্যবধানে তৃতীয় সারির দল আলকোইয়ানোর বিপক্ষে হেরে বিদায় নেয় কোপা দেল রের শেষ ৩২ থেকে। জয়ের জন্য মরিয়া রিয়ালকে শুরু থেকে চেপে ধরে আলাভেস। এই দিনে শতবর্ষে পা রাখা দলটি ভীতি ছড়ায় সফরকারীদের রক্ষণে। তবে চতুর্দশ মিনিটে প্রথম ভালো সুযোগটি পায় রিয়ালই। লুকা মদ্রিচের চমৎকার পাসে কেবল গোলরক্ষককে সামনে পেয়ে যান বেনজেমা। কিন্তু শট নেন গোলরক্ষক বরাবর। ফিরতি বলে ফরাসি ফরোয়ার্ডের শট ফেরে পোস্টে লেগে। ঝুঁকি না নিয়ে কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা করেন আলাভেসের এক খেলোয়াড়। সেই কর্নার থেকেই পঞ্চদশ মিনিটে চমৎকার হেডে জাল খুঁজে নেন কাসেমিরো। ৪১তম মিনিটে চমৎকার ফিনিশিংয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন বেনজেমা। টনি ক্রুসের ক্রসে আজারের ফ্লিকে ডি-বক্সের মাথায় বল পান তিনি। কিছুটা এগিয়ে কোনাকুনি শটে দূরের পোস্ট দিয়ে জাল খুঁজে নেন এই ফরোয়ার্ড। প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে জালের দেখা পান আজার। মাঝমাঠে প্রতিপক্ষের এক খেলোয়াড়ের ভুলে বল পেয়ে উঁচু করে বাড়ান ক্রুস। বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আলাভেস গোলরক্ষক ও এক খেলোয়াড়ের মাঝ দিয়ে ঠিকানা খুঁজে নেন বেলজিয়ান ফরোয়ার্ড। গত অক্টোবরের পর লা লিগায় এটাই তার প্রথম গোল। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে রিয়ালকে চেপে ধরে লিগে দুই দলের সবশেষ পাঁচ ম্যাচের দুটিতে জেতা আলাভেস। ৪৭তম মিনিটে দারুণ রিফ্লেক্সে হোসেলুর শট ঠেকিয়ে দেন সফরকারী গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়া। ৫৯তম মিনিটে আর জাল অক্ষত রাখতে পারেননি তিনি। লুকাস পেরেসের ফ্রি কিক থেকে হোসেলুর চমৎকার হেড ঝাঁপিয়ে ঠেকাতে পারেননি কোর্তোয়া। পেরেসকে এদের মিলিতাওয়ের অহেতুক ফাউলে ফ্রি কিক পেয়েছিল আলাভেস। ৭০তম মিনিটে একটুর জন্য বেঁচে যায় রিয়াল। প্রতি-আক্রমণে উল্টো জালের দেখা পায় তারা। মদ্রিচের কাছ থেকে বল পেয়ে কাট করে ভেতরে ঢুকে ঠিকানা খুঁজে নেন বেনজেমা। মাঝমাঠে পুরোপুরি অরক্ষিত ছিলেন তিনি। ৮৩তম মিনিটে পেরেসের ক্রসে ¯্রফে একটা টোকা দরকার ছিল। কিন্তু বলে পা ছোঁয়াতে পারেননি আলাভেসের কেউ। এই জয়ে আতলেতিকো মাদ্রিদের সঙ্গে ব্যবধান কমিয়েছে রিয়াল। ১৯ ম্যাচে ১২ জয় ও চার ড্রয়ে দলটির পয়েন্ট ৪০। দুই ম্যাচ কম খেলে ৪৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে দিয়েগো সিমেওনের দল। কাদিসকে ৩-০ গোলে হারিয়ে তিনে উঠে এসেছে সেভিয়া। ১৯ ম্যাচে দলটির পয়েন্ট ৩৬। এক ম্যাচ কম খেলা বার্সেলোনা ৩৪ পয়েন্ট নিয়ে নেমে গেছে চারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here