বিআরটিএ’র ভুয়া লাইসেন্সে হাতিয়ে নিতো মোটা অংকের টাকা

নিজস্ব প্রতিনিধিঃরাজধানীর ধানমন্ডি এলাকা থেকে বিআরটিএ (বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ)’র নামে জাল ড্রাইভিং লাইসেন্স এবং বিভিন্ন জাল সনদপত্র তৈরি চক্রের এক প্রতারককে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-২। লাইসেন্স নতুন করে তৈরি করে দেয়ার কথা বলে বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নিতো সেই প্রতারক। এসময় তার কাছ থেকে বিআরটিএ’র শিক্ষানবীশ ড্রাইভিং লাইসেন্সের জাল কাগজপত্র, নকল সিল, জাল লাইসেন্স তৈরির সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) সকালে র‍্যাব-২ এর সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) আবদুল্লাহ আল মামুন ব্রেকিংনিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‍্যাব-২ এর একটি আভিযানিক দল গতকাল বুধবার অভিযান পরিচালনা করে রাজধানীর ধানমন্ডির আবাসিক এলাকায় ভিআইপি হাট নামের বাড়ির নিচ তলার গার্ডরুম থেকে বিআরটিএ’র নামে জাল ড্রাইভিং লাইসেন্স এবং বিভিন্ন জাল সনদপত্র প্রদানকরী প্রতারক চক্রের সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃতের নাম- মো. নুরুল আলম (৪৫)।’

আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, গ্রেফতার নুরুল বিআরটিএ থেকে শিক্ষানবীশ ড্রাইভিং লাইসেন্স, লাইসেন্স নবায়ন, ইঞ্জিন পরিবর্তনের আবেদন তৈরি, লাইসেন্সের মালিকানা পরিবর্তন, অথরিটি স্থানান্তর করে দেওয়াসহ বিভিন্ন কাজ করে দেয়ার নামে সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিল।

তিনি আরও জানান, মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন করতে ১৮ হাজার টাকা, প্রাইভেটকার লাইসেন্স করতে এক লাখ ৩৫ হাজার টাকা, কুটপারমিট ২ হাজার টাকা, ফিটনেস প্রদান করতে ২ হাজার টাকা। এমনকি কারো লাইসেন্স হারিয়ে গেলে সে লাইসেন্স নতুন করে তৈরি করে দেয়ার কথা বলে বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নিতো।

র‍্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, ‘বিআরটিএ’সহ বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানের জাল সিল ব্যবহার করে নকল পুলিশ ক্লিয়ারেন্স, নকল ড্রাইভিং লাইসেন্সহ গাড়ির বিভিন্ন জাল কাগজপত্র, লানার্স পেপার ইত্যাদি প্রদানের নাম করে সাধারণ জনগনের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। গ্রেফতারকৃত আসামি একজন পেশাদার প্রতারক চক্রের সক্রিয় সদস্য।’

গ্রেফতারের সময় তার কাছ থেকে বিপুল পরিমাণে বিআরটিএ কর্তৃক পুলিশ সুপার বরাবর তদন্ত প্রতিবেদন ফরম, ড্রাইভিং লাইসেন্সের আবেদন ফরম (বিভিন্ন নামীয়), মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট আবেদন ফরম, ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়নের জন্য আবেদন ফরম, বিভিন্ন ব্যাংকের মানি রিসিভ, পেশাদার চালকের লাইসেন্সের জন্য আবেদন ফরম, বিআরটিএ বিভিন্ন কর্মকর্তার নকল সিলসহ জালিয়াতের কাজে ব্যবহৃত কম্পিউটার ও প্রিন্টার উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতের বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলেও জানান র‍্যাবের এ কর্মকর্তা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here