সংবাদ সম্পাদক মুনীরুজ্জামানের জানাজা অনু‌ষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ দৈনিক সংবাদের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক, বীর মুক্তিযোদ্ধা খন্দকার মুনীরুজ্জামানের নামাজে জানাজা নামাজ অনু‌ষ্ঠিত হ‌য়ে‌ছে। মঙ্গলবার (২৪ নভেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবে এ জানাজা অনু‌ষ্ঠিত হয়।

এ সময় আওয়ামী লীগ, তথ্যমন্ত্রী, পিআইবি, প্রেস কাউন্সিল, ভারতীয় হাই কমিশন, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন, জাতীয় প্রেসক্লাব, সম্পাদক পরিষদ, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি, সংবাদ পরিবার, উদীচী, সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন ও বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টির পক্ষ থেকে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয়। এছাড়া জানাজার আগে মুনীরুজ্জামানের বড়ভাইসহ সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ মুনীরুজ্জামানের সঙ্গে কাটানো মুহুর্তের স্মৃতিচারণ করেন।

জাতীয় প্রেসক্লা‌বের সভাপ‌তি সাইফুল আলম বলেন, আমরা বেদনায় আপ্লুত। একের পর এক স্বজন হারাচ্ছি আমরা। এমন একটা সময় স্বজন হারাচ্ছি, যখন তাদের পাশে দাঁড়াতে পারছি না ও সেবা করতে পারছি না। দেশ ও জনগণ কঠিন সময় অতিবাহিত করছে। এ সময়টাতে আমাদের অত্যন্ত কাছের মানুষ সাংবাদিক, লেখক, প্রিয় বন্ধু, প্রিয় অভিভাবক মনিরুজ্জামানকে আমরা হারালাম।

তিনি বলেন, মনিরুজ্জামান এমন একজন মানুষ ছিলেন, যিনি সময়ের আগে চলতেন। সময়কে ধারণ করতেন। সে চলে যাওয়ায় আমাদের অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে। আমরা তার রুহের মাগফিরাত কামনা করি।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন বলেন, মনিরুজ্জামান শুধু সাংবাদিক ছিলেন না। তিনি একজন কবি, কলামিস্ট ও রাজনৈতিক ছিলেন। তিনি অত্যন্ত সহজ সরল মানুষ ছিলেন এবং সবসময় মানুষের পাশে দাঁড়াতেন। আমরা তার রুহের মাগফিরাত কামনা করি।

জানাজা শেষে মরহুমের প্রতি ঢাকা জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে তাঁর মরদেহ দাফন করা হবে।

জানাজার নামাজে আরও উপস্থিত ছিলেন ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের মহাসচিব শাবান মাহমুদ, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শওকত মাহমুদ, জাতীয় প্রেসক্লাবের কোষাধক্ষ্য শ্যামল দত্ত, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ, সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপু ও সিনিয়র সাংবাদিক লোকজন বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

উল্লেখ‌্য, সকাল ৭টা ২০ মিনিটে রাজধানীর মুগদা জেনারেল হাসপাতালে তিনি মারা যান। তিনি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ২১ দিন চিকিৎসাধীন ছিলেন।

মুনীরুজ্জামান ২০১০ সালের ৪ জানুয়ারি দৈনিক সংবাদের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক হন। মৃত্যুর আগদিন পর্যন্ত তিনি এই দায়িত্ব পালন করেন। তাঁর মৃত্যুতে সাংবাদিকদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here