অবৈধভাবে চাকরি না পেয়ে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে মিথ্যা প্রোপাগান্ডা ছড়াচ্ছে কিছু কুচক্রী মহল

মো: বেলাল হোসেন ‍॥ বাকেরগঞ্জের রানিরহাট বেগম সামসুদ্দিন তালুকদার ডিগ্রী কলেজের নিয়োগ নিয়ে কিছু কুচক্রী মহল অত্র কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে মিথ্যা ঘুষ বাণিজ্যের প্রচার করে যাচ্ছে। বেগম শামস উদ্দিন তালুকদার ডিগ্রী কলেজে একজন লাইবেরিয়ান, দুইজন ল্যাব সহকারী, একজন অফিস কাম কম্পিউটার ও একজন পিয়ন নিয়োগ দিয়েছে বলে জানা যায়। অত্র কলেজের অধ্যক্ষ বলেন, উক্ত নিয়োগ বাংলাদেশ সরকারের নিয়োগবিধি পরিপূর্ণ মেনে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে বলে জানান এবং উক্ত পাঁচটি পোস্টের সকলেই কলেজে যোগদানপত্র পেয়ে সঠিক টাইমে কলেজে যোগদান করেছেন ও তাদের যোগদান পত্রে অধ্যক্ষ স্বাক্ষর করেছেন বলে জানান। উক্ত যোগদানের খবর পেয়ে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে কুচক্রী মহল ক্ষোভে ফেটে পড়েন ও তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন মিথ্যা অভিযোগ করে মানববন্ধন করেন। উক্ত মানববন্ধনে গণমাধ্যম কর্মীদের সামনে লিখিতভাবে অভিযোগ আনেন মোহাম্মদ ইকবাল সর্দার ও তার চাচা রিপন সরদার দাবি করে যে আমার ভাইপো এর চাকরির জন্য আমি অধ্যক্ষ কে সাত লক্ষ টাকা উৎকোচ প্রদান করি এবং যারা নিয়োগ পেয়েছে তারা সবাই অধ্যক্ষকে উৎকোচ দিয়ে নিয়োগ পান। গণমাধ্যম কর্মীদের সামনে তিনি আরো বলেন যে, অফিস কাম কম্পিউটার অপারেট এ নিয়োগ প্রাপ্ত ব্যক্তি জামাত-শিবিরের সাথে সংশ্লিষ্ট। উক্ত ব্যাপারে রিপন সরদারকে মুঠোফোনে ফোন দিলে তিনি তার আনীত অভিযোগ সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলে এবং কোনো প্রমাণ চাইলে তার কাছে কোন প্রমাণ নাই বলে জানান। উক্ত ব্যাপারে মোহাম্মদ রোমান মৃধাকে ফোন দিলে তিনি জানান, লিখিত ও ভাইভা পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকার করে অফিস কাম কম্পিউটার অপারেটর এ যোগদান করেন। এবং তার বিরুদ্ধে জামায়াত শিবিরের অভিযোগ সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন আমি বর্তমানে নড়াইল জেলা বঙ্গবন্ধু স্মৃতি পাঠাগারের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছি ও নড়াইল জেলা ছাত্রলীগ’র সদস্য। তিনি আরো বলেন আমার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ যদি তারা সত্য প্রমাণ না করতে পারে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ আইনের সহায়তা নেবেন বলে জানান অত্র কলেজের অধ্যক্ষ মজিবুর রহমান তিনি সাংবাদিকদের কে বলেন আমার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ ঘুষ বাণিজ্য যদি তারা প্রমাণ করতে না পারে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেব এবং আমি অত্র কলেজের গভর্নিং বডির সভাপতি সহ সকলের সাথে পরামর্শ করে বাংলাদেশ নিয়োগ বিধি মেনে ৫ সদস্যের নিয়োগ বোর্ডের মাধ্যমে মেধা তালিকা যাচাই করে উক্ত ৫ সদস্যদেরকে নিয়োগ দেই। সকলের মেধা তালিকা পত্রে নিয়োগবোর্ডের সকলে স্বাক্ষর প্রদান করেন। সর্বোপরি আমি আমার বিরুদ্ধে সকল মিথ্যা ও ষড়যন্তের পূর্তি ধিক্কার জানাই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here