প্রথমবারের মতো শান্তিপূর্ণ ক্ষমতা হস্তান্তরের বিষয়ে সম্মতি দিলেন ট্রাম্প

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ নিরপেক্ষ নির্বাচন এবং সুষ্ঠু ভোট গণনা হলেই কেবল ফলাফল মেনে নিবেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। প্রথমবারের মতো শান্তিপূর্ণ ক্ষমতা হস্তান্তরের বিষয়ে সম্মতি দিলেন তিনি।মুখোমুখি দ্বিতীয় টিভি বির্তক না হলেও; টাউন হল বৈঠকে আলাদাভাবে ভোটারদের প্রশ্নের মুখোমুখি হন দুই প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প ও জো বাইডেন। মিয়ামি এবং পেনসিলভানিয়ায় দেড়ঘণ্টার আয়োজনে নিজেদের কর্মপরিকল্পনা, প্রতিশ্রুতি তুলে ধরেন। যা, সরাসরি সম্প্রচার করে এনবিসি ও এবিসি নিউজ চ্যানেল।

এসময়, করোনাভাইরাস, শ্বেতাঙ্গ উগ্রপন্থা, করফাঁকি এবং বিচারপতি নিয়োগ ইস্যুতে ভোটারদের প্রশ্নের মুখে পড়েন ডোনাল্ড ট্রাম্প। রক্ষণাত্বক অবস্থানে থেকেই প্রতিপক্ষের ওপর আক্রমণ বজায় রাখেন প্রেসিডেন্ট।অন্যদিকে, বিজ্ঞানী-গবেষকদের অনুমোদনের পরই করোনা ভ্যাকসিন গ্রহণের পরামর্শ দেন, ডেমোক্র্যাট প্রার্থী। নির্বাচনের আগ-মুহুর্তে, সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি নিয়োগকে ‘অবান্তর’ অ্যাখ্যা দেন, জো বাইডেন।বর্তমান প্রেসিডেন্ট ও রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, কোভিড নাইনটিন’সহ বিভিন্ন নমুণা পরীক্ষার মধ্যেই আছি। সেক্ষেত্রে, আমার চিকিৎসকরা সবচেয়ে ভালো উত্তরটা দিতে পারবেন। তবে, নিবার্চনী সমাবেশের জন্য আমি পুরোপুরি ফিট। মাস্ক পড়া নিয়ে আপত্তি নেই। কিন্তু, যারা নিয়মিত ব্যবহার করছেন তারাও আক্রান্ত হচ্ছেন করোনাভাইরাসে।ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী জো বাইডেন বলেন, যখন মাস্ক নিয়ে খোদ প্রেসিডেন্ট কৌতুক-তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করেন; সেসময় করোনার ভয়াবহতা’টা গুরুত্বহীন হয়ে পরে। দ্বিতীয় বিষয়টি হলো- ট্রাম্পের কথায় কেনো আমরা ভ্যাকসিন গ্রহণ করবো? তাহলে- চিকিৎসক-গবেষকরা কি করছেন? তারা যতোদিন অনুমোদন না দিবেন, সেই টিকা গ্রহণ থেকে বিরত থাকার অনুরোধ জানাচ্ছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here