বরিশাল নগরীতে হোটেল রিয়া’য় অনৈতিক বাণিজ্য, ক্ষুদ্ধ এলাকাবাসী

নিজস্ব প্রতিনিধিঃবরিশাল নগরীর ফিসারী রোডে আবাসিক হোটেলে চলছে অনৈতিক কর্মকান্ড। কৌশলী ভাবে তারা এসব চালাচ্ছে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর। প্রশাসনের নজরদারী উপেক্ষা করে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ের মাধ্যমে অনৈতিক কান্ড চালিয়ে যাচ্ছে হোটেল রিয়া’র কর্তৃপক্ষ।
সূত্রে জানাযায়, বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) স্বামী স্ত্রী পরিচয়ে হোটেল রিয়া’র ২১০নং কক্ষ ভাড়া নেয় এক দম্পতি। এনিয়ে স্থানীয়দের মাঝে কানাঘুষা শুরু হয়। হোটেল কর্তৃপক্ষ ঘটনাটি আচ করতে পেরে ওই দম্পতিকে দ্রæত হোটেল ত্যাগ করতে সহযোগীতা করে। পরবর্তীতে হোটেল কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করলে ম্যানেজার আবু তাহের মিয়া বলেন, ‘আগন্তকরা স্বামী স্ত্রী’। রেকর্ড বইয়ে তাদের পরিচয় লেখা রয়েছে বাবুগঞ্জ উপজেলার ক্ষুদ্রকাঠি গ্রামের এইচ এম রাকিবুল হক তার ২৫ বছরের এক সঙ্গী।
তিনি আরো বলেন, ‘এরা ডাক্তার দেখাতে এসেছে। এক দিনের জন্য ভাড়া নিয়েছে। তবে হঠাৎ কেন চলে গেছে আমি জানিনা।’
আগন্তকদের কোন ছবি বা সঠিক কোন পরিচয়পত্র দেখাতে পারেনি হোটেল কর্তৃপক্ষ।
সিসি ক্যামেরা থাকার প্রশাসনের জোড় নির্দেশনা থাকলেও নেই তাদের।
ম্যানেজার আবু তাহের মিয়া জানান,‘ হোটেল মালিক ভোলায় থাকেন। তিনি একজন স্কুল শিক্ষক।’ পুরো পরিচয় জানতে চাইলে তিনি জানান ‘ভোলা জেলার লালমোহন উপজেলার পশ্চিম চরউমেদ ইউনিয়েনর কচুয়াখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আ: আহাদ।’
এব্যাপারে হোটেল মালিক আ: আহাদের মোবাইল নাম্বারে যোগাযোগ করলে তার ব্যবহৃত নাম্বার বন্ধ পাওয়া গেছে।
স্থানীয়রা জানান, আবাসিক এলাকায় এমন একটি হোটেল আমাদের নৈতিক অবক্ষয় ঘটাচ্ছে। এব্যাপারে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছে এলাকাবাসী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here