বাবরের অবৈধ সম্পদের মামলা: আদালত পরিবর্তনের আবেদন খারিজ

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ বিএনপি নেতা ও সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরের অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলার বিচারিক আদালত পরিবর্তনের আবেদন সরাসরি খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। এছাড়াও বিচারিক আদালতকে আদেশ প্রাপ্তির ৩০ দিনের মধ্যে মামলা নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

লুৎফুজ্জামান বাবর আলোচিত ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলা এবং ১০ ট্রাক অস্ত্র মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি।

বুধবার (১৪ অক্টোবর) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি আহমেদ সোহেলের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন- আইনজীবী মো. খুরশিদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন (মানিক) ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মাহজাবিন রাব্বানী দীপা। আর আবেদনকারীর পক্ষে ছিলেন আইনজীবী পারভেজ হোসেন।

এর আগে ৭ কোটি ৫ লাখ ৯১ হাজার ৮৯৬ টাকা জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন ও সম্পদের হিসাব বিবরণীতে তথ্য গোপনের অভিযোগে ২০০৮ সালের ১৩ জানুয়ারি তার বিরুদ্ধে রমনা থানায় মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

এরপর দুদকের উপপরিচালক রুপক কুমার সাহা তদন্ত শেষ করে ওই বছরের ১৬ জুলাই অভিযোগপত্র দাখিল করেন। মামলাটি ঢাকার বিশেষ জজ আদালত নং ৭-এ সাক্ষ্য শেষে চলতি বছরের ১ মার্চ ফৌজদারি কার্যবিধির ৩৪২ ধারা মতে পরীক্ষা করা হয়। আসামি পক্ষের আর্জি সাফাই সাক্ষী দেবেন না, তবে লিখিত বক্তব্য দেবেন বলে সময় নেন। লিখিত বক্তব্য না দিয়ে এভাবে পরপর তিনবার সময় নেন তারা।

এরপর কারণ না থাকা সত্ত্বেও হাইকোর্টে আদালত পরিবর্তনের আবেদন করেন আসামিপক্ষ। সেখানে কোনো যুক্তি সঙ্গত কারণ উল্লেখ না থাকায় হাইকোর্ট আবেদনটি সরাসরি খারিজ করে দেন এবং আদেশ হাতে পাওয়ার ৩০ দিনের মধ্যে মামলা নিষ্পত্তি করার নির্দেশ দেন আদালত।

বিচারিক আদালতে আজ (১৪ অক্টোবর) মামলাটির শুনানির জন্যে ধার্য ছিল, এরপর পরবর্তী শুনানির জন্য আগামী ১৫ নভেম্বর দিন ঠিক করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here