বোরহানউদ্দিনে স্কুলছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার ২

বোরহানউদ্দিন প্রতিনিধিঃ  ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলায় ১৩ বছর বয়সী এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় সফিকুল ইসলাম ও মো. নাগর মাল নামে দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার (১০ অক্টোবর) বোরহানউদ্দিন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মোহাম্মদ মাজহারুল আমিন জানান, ধর্ষণের ঘটনায় মামলা হওয়ার পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে ২ জনকে গ্রেফতার করেছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা উভয়ই অপহরণ ও গণধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে। তাদরকে দুপুরে আদলতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

তারা হলেন- সফিকুল ইসলাম লালমোহন উপজেলার কালমা ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের লাল মিয়া ঢালীর ছেলে ও মো. নাগর মাল একই উপজেলার চরলক্ষ্মী গ্রামের হাবু উল্লাহ মালের ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ভোলার লালমোহন উপজেলার ১৩ বছর বয়সী এক স্কুলছাত্রীর সাথে সফিকুল ইসলামের পরিচয় হয়। গত বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে ওই ছাত্রীকে তার বাড়ি থেকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে সফিকুল ইসলাম ও নাগর মাল অপহরণ করে নিয়ে আসে। পরে বোরহানউদ্দিন উপজেলার কাচিয়া ইউনিয়নের পদ্মামনসা গ্রামের সবুজ হাজীর সুপারির বাগানের উত্তর পাশের পুকুর পাড়ে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে স্কুলছাত্রীকে ওই এলাকার ভোলা-চরফ্যাশন আঞ্চলিক মহাসড়ক সংলগ্ন সরকারি আবাসন প্রকল্পের সামনে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।

খবর পেয়ে রাত পৌনে ১২টার দিকে বোরহানউদ্দিন থানা পুলিশের একটি টিম মেয়েটিকে উদ্ধার করে। এরপর তাকে চিকিৎসা ও পরীক্ষা নিরীক্ষার করার জন্য ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠায়। এ ঘটনায় শুক্রবার মেয়েটির মা বাদী হয়ে সফিকুল ইসলাম ও মো. নাগর মালের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ অভিযান চালিয়ে শুক্রবার সফিকুল ইসলামকে বোরহানউদ্দিনের দেউলা ইউনিয়ন থেকে ও মো. নাগরকে একই উপজেলার কুঞ্জেরহাট এলাকা থেকে গ্রেফতার করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here