উজিরপুরে মাহেন্দ্র চালককে পিটিয়ে টাকা ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিনিিধিঃ ্উজিরপুর উপজেলার গুঠিয়া বন্দরে প্রকাশ্যে মাহেন্দ্র চালককে পিটিয়ে টাকা ছিনিয়ে নেয়ার
অভিযোগ উঠেছে। সূত্রে জানাযায়, গতকাল বৃহস্পতিবার আনুমানিক বেলা ১.৩০ মিনিটে
গুঠিয়া বন্দরের দক্ষিনপার্শ্বে হাওলাদার টেলিকম সংলগ্ন রাস্তার উপরে মাহেন্দ্র চালক এনায়েত
হোসেন খান (৬৫) কে পিটিয়ে তার সঙ্গে থাকা ৫২ হাজার ৪শত টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে
স্থানীয় সুলতান হাওলাদারের পুত্র মামুন, রবিউল এ সময় তাদের সাথে ইসমাইল সহ আরও ৬/৭ জন
ছিল। আহত এনায়েত হোসেন খান, শংকরপুর এলাকার মোসলেম খানের পুত্র। আহত এনায়েত খান
শেবাচিম হাসপাতালের সার্জারী ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন। এনায়েত হোসেন জানান, রাস্তায়
মাহেন্দ্র চালাতে হলে মালিক সমিতিতে ভর্তি করতে হয়। এজন্য ৫/৬ মাস পূর্বে সুলতান
হাওলাদারের পুত্র মামুন হাওলাদারকে ৮ হাজার টাকা দেই। আমি উক্ত টাকার মানিরিসিভ চাইলে
বিভিন্ন অজুহাতে মামুন ঘোরাতে থাকে। বৃহস্পতিবার মামুন আমাকে ফোন দিয়ে ঘটনাস্থলে
আসতে বলে। আমি ঘটনাস্থলে আসা মাত্র সাবল, লাঠিসোঠা ও দা নিয়ে আমাকে মারধর করতে
থাকে। এ সময় আমার সঙ্গে থাকা মানিব্যাগে ২ হাজার ও লুঙ্গির ভাঁজে থাকা ৫০ হাজার টাকা
এবং পকেটে থাকা ৪ শত টাকা নিয়ে যায় তারা। আমার ডাক-চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে আসলে
মামুন, রবিউল, ইসমাইল সহ তাদের সাঙ্গ-পাঙ্গরা আমাকে জীবন নাশের হুমকি দিয়ে ঘটনাস্থল
ত্যাগ করে। স্থানীয়রা আমাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করে।
আমি ঘটনাটি বরিশাল জেলা মাহেন্দ্র শ্রমিক ইউনয়ন সভাপতিকে জানিয়েছি। মাহেন্দ্র মালিক
সমিতির সভাপতি মো: দুলাল হোসেন তালুকদারকে ঘটনাটি জানানোর জন্য ফোন দিলেও তিনি
রিসিভ করেননি। আমি ন্যায় বিচার প্রার্থনা করে চিকিৎসা শেষে আদালতের শরনাপন্ন হব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here