গণধিক্কার ও ‘ব্যর্থ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর’ কুশপুত্তলিকা পোড়ালো জনতা

নিজিস্ব প্রতিনিধিঃ নোয়াখালি বেগমগঞ্জে এক নারীকে বিবস্ত্র করে শ্লীলতাহানির ভিডিও ধারণ এবং তা প্রকাশসহ সারা দেশে নারী নিপীড়ন ও ধর্ষণের প্রতিবাদে ‘গণধিক্কার’ জানিয়ে ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালকে ‘অযোগ্য’ আখ্যা দিয়ে তার কুশপুত্তলিকা দাহ করেছে বাংলাদেশ নারীমুক্তি কেন্দ্র ও সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট।

মঙ্গলবার (৬ অক্টোবর) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত এক বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে এ কুশপুত্তলিকা দাহ করে তারা।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, সারা দেশে যখন একের পর এক নারী ধর্ষণ, গণধর্ষণ ও খুনের ঘটনা ঘটছে তখন যার কাছে মানুষ নিরাপত্তা বিধানের জন্য আবেদন জানাবে সেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জাতির সামনে হতবাক করা বক্তব্যে জানান দিলেন, ‘কোন দেশের নারী ধর্ষণ হয় না!’ অর্থাৎ নারী ধর্ষণের ঘটনা অত্যন্ত স্বাভাবিক। তাই তার বক্তব্যে সাহস পেয়ে আরও দ্বিগুণ উৎসাহে যুবলীগের কুলাঙ্গাররা পাকিস্তানি নির্মমতাকেও হার মানিয়ে নোয়াখালীতে ঘরে ঢুকে পরিবারের লোকজনের সামনে এক নারীকে বিবস্ত্র করে বীভৎসভাবে শ্লীলতাহানি ঘটিয়েছে এবং সেই মুহূর্তের ভিডিও ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রচার করেছে।

তারা বলেন, ‘এ ঘটনায় অনেকে মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। লাম্পট্য আজ এমন জায়গায় পৌঁছে গেছে যে, বাবা তার সন্তানকে রক্ষা করতে পারছে না, ভাই তার বোনকে রক্ষা করতে পারছে না, স্বামী তার স্ত্রীকে রক্ষা করতে পারছে না। জনগণের এই চরম দুঃসময়ে নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে জনগণ ঘৃণাভরে বর্জন করেছে।’

সমাবেশ থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের পদত্যাগ দাবি করা হয়।

সমাবেশে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ নারীমুক্তি কেন্দ্রের সভাপতি সীমা দত্ত, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সভাপতি সালমান সিদ্দিকী, বাংলাদেশ নারীমুক্তি কেন্দ্রের নগর সদস্য নাজনীন আক্তার শারমিন প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here