মিন্নিসহ ৬ ফাঁসির আসামির ডেথ রেফারেন্স হাইকোর্টে

বরগুনা প্রতিনিধিঃ বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় তার স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিসহ ৬ জনের মৃত্যুদণ্ড অনুমোদনের (ডেথ রেফারেন্স) নথি হাইকোর্টে এসেছে।

ফৌজদারি কার্যবিধির ৩৭৪ ধারা অনুযায়ী বিচারিক আদালতের দেয়া কোনও মৃত্যুদণ্ডের রায় অনুমোদনের জন্য মামলার নথি ডেথ রেফারেন্স আকারে হাইকোর্টে পাঠাতে হয়।

সেই মোতাবেক রবিবার (৪ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টায় মিন্নিসহ মৃতুদণ্ডপ্রাপ্ত ৬ আসামির ডেথ রেফারেন্স হাইকোর্টে এসেছে।

সুপ্রিম কোর্টের মুখপাত্র মোহাম্মদ সাইফুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ৬ জন হলেন- রাকিবুল হাসান রিফাত ফরাজি (২৩), আল কাইউম ওরফে রাব্বি আকন (২১), মোহাইমিনুল ইসলাম সিফাত (১৯), রেজওয়ান আলী খান হৃদয় ওরফে টিকটক হৃদয় (২২),  আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি (১৯) ও মো. হাসান (১৯)। এছাড়া খালাস পাওয়া ৪ জন হলেন- মো. মুসা (২২), রাফিউল ইসলাম রাব্বি (২০), মো. সাগর (১৯) ও কামরুল হাসান সায়মুন (২১)।

এদিকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশের বিপক্ষে আবেদন করতে মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর রবিবার সকালে হাইকোর্টে এসেছেন।

গত বছরের ২৬ জুন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্য দিবালোকে রাম দা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে রিফাত শরীফকে। একাধারে রিফাতকে কুপিয়ে বীরদর্পে অস্ত্র উঁচিয়ে এলাকা ত্যাগ করে হামলাকারীরা। গুরুতর আহত রিফাতকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে বিকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

এ ঘটনায় গত বছরের ২৭ জুন সকালে নিহতের বাবা দুলাল শরীফ বাদী হয়ে প্রথমে ১২ জনের নাম ও আরও ৫-৬ জনকে অজ্ঞাত উল্লেখ করে বরগুনা সদর থানায় মামলা দায়ের করেন।

এর আগে গেল বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) রিফাত শরীফ হত্যার ঘটনায় রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিসহ ৬ আসামির ফাঁসি ও ৪ জনকে খালাস দিয়ে রায় ঘোষণা করেন বরগুনা জেলা দায়রা ও জেলা জজ আদালতের বিচারক মো. আসাদুজ্জামান।

রায়ে মিন্নির বিষয়ে আদালত বলেন, ‘আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি এ হত্যা পরিকল্পনার মূল হোতা। তার কারণেই রিফাতের মা-বাবা পুত্রহারা হয়েছেন। মিন্নির দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি না হলে তাকে অনুসরণ করে তার বয়সী মেয়েদের বিপথগামী হওয়ার আশঙ্কা থাকবে। তাই এ মামলায় মিন্নির দৃষ্টান্তমূলক শান্তি হওয়া বাঞ্ছনীয়।’

এর আগে গতকাল শনিবার রিফাত হত্যা মামলায় বিচারিক আদালতের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here