নেত্রকোণায় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত প্রায় ৪৬ হাজার ৬৩০ কৃষক

নেত্রকোণা প্রতিনিধি:গেলো বোরো মৌসুমে ধানের ভালো দাম পাওয়ায় এবার আমনে ঝুঁকেছিল কৃষকরা। জেলায় চলতি মৌসুমে এক লক্ষ ৩৪ হাজার ৬২৫ হেক্টর জমিতে রোপা আমনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল এর মধ্যে এক লক্ষ ৩৩ হাজার ২২০ হেক্টর জমি চাষের আওতায় এসেছে যা মোট জমির ৯৮%।

কিন্তু অতি বৃষ্টি, পাহাড়ি ঢল এর ফলে সৃষ্ট দফায় দফায় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বহু কৃষক, নিমজ্জিত হয়েছে প্রায় বিশ হাজার হেক্টর জমি।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নেত্রকোণা জেলা কৃষি উপপরিচালক হাবিবুর রহমান বলেন, নেত্রকোনা জেলায় চতুর্থবারের বন্যায় এ পর্যন্ত পানিতে নিমজ্জিত হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ১৯৯৫৮ হেক্টর জমি ও সম্ভাব্য ৪৬ হাজার ৬৩০ জন কৃষক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। তিনি আরও বলেন, আমরা আশা করছিলাম যে আরেকটু আবাদ হতো কিন্তু অতিবৃষ্টি এবং পাহাড়ি ঢলের কারণে শতভাগ আবাদের আওতায় আসেনি।

উল্লেখ যে, খরিপ-২ মৌসুমে রোপা আমন ধানের আবাদ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে তিন লক্ষ বায়ান্ন হাজার ৮১৭ মেট্রিক টন। জেলার সার্বিক চিত্র পর্যালোচনা করলে দেখা যায় গত বছরের তুলনায় এবার আবাদ ও উৎপাদন লক্ষ্য মাত্রাও বৃদ্ধি পেয়েছে।

কিন্তু বর্ষার শুরুতেই প্রচুর বৃষ্টিপাত ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলের কারণে সৃষ্ট দফায় দফায় বন্যার কারণে বন্যা কবলিত এলাকায় কিছুটা আমনের চারা সংকট দেখা দিয়েছে। এসব এলাকার কৃষকরা উঁচু এলাকা থেকে চড়া দামে আমনের চারা কিনতে বাধ্য হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here