শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার আগে হচ্ছে না এইচএসসি পরীক্ষা

নিজস্ব প্রতিনিধি:নভেল করোনা ভাইরাস মহামারির প্রাদুর্ভাবে টানা সাড়ে ৫ মাসেরও বেশি সময় ধরে বন্ধ থাকা দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো খোলার আগ পর্যন্ত এএইচএস ও সমমানের পরীক্ষা হচ্ছে না।

পূর্বনির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী আগামীকাল বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) অনুষ্ঠিতব্য বাংলাদেশ আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটির বৈঠকেও এ পাবলিক পরীক্ষার বিষয়ে নতুন কোনও সিদ্ধান্ত আসছে না।

অন্যদিকে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডে ১১ শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানদের বৈঠকে পরীক্ষার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসার খবরটি ‘সত্য নয়’ উল্লেখ করে বোর্ড চেয়ারম্যানরা জানিয়েছেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার আগে পরীক্ষা হবে না, এটাই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত। আর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার মতো পরিস্থিতি এখনও সৃষ্টি হয়নি।

আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর দুপুর ২টায় সব শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানদের অংশগ্রহণে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিতব্য বৈঠকে সভাপতিত্ব করবেন আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমম্বয় সাব-কমিটির সভাপতি ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক।

গেল মঙ্গলবার অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘আসলে বৃহস্পতিবারের বৈঠকে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা নিয়ে আলোচনা হবে না। এ বৈঠক আমাদের চেয়ারম্যানদের নিয়মিত বৈঠকের অংশ মাত্র। পরীক্ষা নিয়ে এখনই সিদ্ধান্ত নেয়ার মতো কোনও অবস্থাই তৈরি হয়নি। বিশ্বব্যাপী করোনার কারণে যে সংকট এর মধ্যে আমরাও আছি। এখন পরীক্ষা কীভাবে হবে?’

এক্ষেত্রে শিগগিরই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার ব্যাপারে কোনও চিন্তা আছে কিনাা- এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘এটা আসলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত। আমার একার পক্ষে দেয়া সম্ভব নয়। তবে এটুকু বলতে পারি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার আগে পরীক্ষা হবে না, এটাই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত। আর এখনও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার মতো পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়নি।’

গেল ১ এপ্রিল সারা দেশে একযোগে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা থাকলেও করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে তা স্থগিত হয়ে যায়।

নভেল করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বাড়তে থাকায় গত ১৭ মার্চ দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করে সরকার। ২৬ মার্চ থেকে সারা দেশে সব অফিস-আদালত ও যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়। শুরু হয় কঠোর ‘লকডাউন’।

এরপর টানা ৬৬ দিন সাধারণ ছুটির পর গত ৩১ মে থেকে সীমিত পরিসরে অফিস খুলে যানবাহন চলাচল শুরু হলেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর ছু্টির বাড়ানো হয় ৩১ আগস্ট পর্যন্ত।

তবে সেই মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই গত ২৭ আগস্ট শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে দেয়া এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর ছুটি আরও এক দফা বাড়িয়ে ৩ অক্টোবর পর্যন্ত করা হয়।

এরইমধ্যে চলতি বছরের পিইসি ও জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে। দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে দীর্ঘ দিন ধরেই অনলাইন মাধ্যমে পাঠদান চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here