আমাকে মামলায় ফাঁসানো হয়েছে: সেই গাড়িচালক

নিজস্ব প্রতিনিধি:নিজেকে ফাঁসানো হয়েছে বলে দাবি করেছেন অবৈধ অস্ত্র, জাল নোট ব্যবসা ও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার হওয়া স্বাস্থ্য অধিদফতরের গাড়িচালক আব্দুল মালেক।

সোমবার রিমান্ড শুনানি শেষে হাজতখানায় নেয়ার পথে তিনি বলেন, আমাকে মামলায় ফাঁসানো হয়েছে। দুই সাংবাদিককে চাঁদার টাকা না দেয়ায় তারা আমাকে ফাঁসিয়েছে। আমি চক্রান্তের স্বীকার। আমি সম্পূর্ণ নির্দোষ।

এদিকে, আব্দুল মালেকের দুর্নীতি অনুসন্ধান করা হবে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে তিনি কোনোভাবেই পার পাবেন না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন স্বাস্থ্যসচিব আব্দুল মান্নান।

সোমবার বিকেলে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও বলেন, যারাই দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত থাকবে, তাদের কাউকে কোনো ছাড় দেওয়া হবে না। আজকের মধ্যেই বরখাস্ত করার তাগিদ দেয়া হবে।

সচিব বলেন, আমাদের দুর্নীতি দমন কমিশন কাজ করছে। যারা দুর্নীতি করছে তাদের বিরুদ্ধে কাজ অব্যাহত রয়েছে। এক জায়গায় শিরোনাম দেখলাম, সীমাহীন দুর্নীতি এগুলো আমার মনে হয় আমাদের যে নিয়ম আছে, তাতে সে ছাড় পাবে না।

এর আগে তার বিরুদ্ধে রাজধানীর তুরাগ থানায় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) বাদী হয়ে দুটি মামলা দায়ের করে। সোমবার আব্দুল মালেককে আদালতে হাজির করে তদন্ত কর্মকর্তা তুরাগ থানার এসআই রুবেল শেখ ১৪ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। আসামিপক্ষে আইনজীবী জি এম মিজানুর রহমান রিমান্ড বাতিলপূর্বক জামিন আবেদন করেন। শুনানি শেষে জামিন আবেদন নাকচ করে ১৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

এর আগে গোপন সূত্রে সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে রবিবার (২০ সেপ্টেম্বর) দিনগত রাত সোয়া ৩টার দিকে রাজধানীর তুরাগ থানাধীন কামারপাড়া বামনের টেক ৪২ নম্বর হাজি কমপ্লেক্স ভবন থেকে আব্দুল মালেককে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-১।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here