বার ওসি প্রদীপের ‘দেহরক্ষী’ কনস্টেবল রুবেলকে গ্রেফতারে আবেদন

নিজস্ব প্রতিনিধি:অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যার ঘটনায় সম্পৃক্ততা যাচাইয়ে টেকনাফ থানার কনস্টেবল রুবেল শর্মাকে গ্রেফতার করতে আদালতে আবেদন করেছে এ হত্যা মামলার তদন্ত সংস্থা র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন (র‍্যাব)।

জানা যায়, রুবেল শর্মা ছিলেন টেকনাফ থানার বরখাস্তকৃত ওসি ও সিনহা হত্যা মামলার অন্যতম আসামি প্রদীপ কুমার দাসের দেহরক্ষী।

সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ ব্রেকিংনিউজকে রুবেলকে গ্রেফতারে আবেদনের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ‘সিনহা হত্যাকাণ্ডে টেকনাফ থানার কনেস্টবল রুবেল শর্মার প্রাথমিকভাবে সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেছে। এজন্য তাকে গ্রেফতার করতে বিজ্ঞ আদালতে আবেদন করেছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা।’

এর আগে, মাদক কারবারিদের ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে ও আত্মসমর্পণ করানোর নামে হাতিয়ে নেয়া অর্থ সরাতে গিয়ে ধরা পড়েন কনস্টেবল রুবেল শর্মার স্ত্রী লক্ষ্মী শর্মা। গেল ৫ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় ব্যাগে করে টাকা পাচার করতে গিয়ে মেরিন ড্রাইভ সড়কের একটি চেকপোস্টে তিনি ধরা পড়েন।

গত ৩১ জুলাই রাতে টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সাবেক সেনা কর্মকর্তা সিনহা মো. রাশেদ খান।

৫ আগস্ট সিনহার বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌসী বাদী হয়ে কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্টেট আদালতে এসআই লিয়াকত, ওসি প্রদীপ কুমার দাসসহ ৯ পুলিশের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় ৯ পুলিশ সদস্যকেই বরখাস্ত করা হয়। মামলাটি তদন্ত করছে কক্সবাজার র‌্যাব-১৫।

আলোচিত এ হত্যা মামলার পুলিশের ৯ আসামি হলেন- টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাস, টেকনাফ বাহারছড়া তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ পরিদর্শক মো. লিয়াকত, বাহারছড়া তদন্ত কেন্দ্রের উপপরিদর্শক (এসআই) নন্দ দুলাল রক্ষিত, কনস্টেবল সাফানুর করিম, কামাল হোসেন, আব্দুল্লাহ আল মামুন, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) লিটন মিয়া, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) টুটুল ও কনস্টেবল মোহাম্মদ মোস্তফা। এদের মধ্যে আসামি মোস্তফা ও টুটুল পলাতক আছেন।

সিনহা হত্যা মামলায় এ পর্যন্ত ৭ পুলিশ, আর্মড পুলিশের ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) ৩ সদস্য ও টেকনাফ পুলিশের করা মামলার ৩ সাক্ষীসহ ১৩ জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here