বরিশালে মহানগর বিএনপির রাজনীতিতে নয়া মেরুকরন

আসাদুজ্জামান : বরিশালে মহানগর বিএনপির রাজনীতিতে নতুন মেরুকরন হচ্ছে, বর্তমান কেন্দ্রীয় বিএনপির মহাসচিব মজিবর রহমান সরোয়ারের বরিশাল বিএনপিতে দীর্ঘদিনের একক আধিপত্যর অবসানের পথে হাটছেন শীর্ষ নেতারা।

এমনই আভাস পাওয়া গেছে,আগামী কমিটিতে নগর বিএনপির সভাপতির পদ থেকে মজিবর রহমান সরোয়ার শটকে পরলেও তার অনুগত পছন্দের ব্যক্তিকে নগর বিএনপির সভাপতির পদে অধিষ্ঠিত করতে চাচ্ছেন বলে জানা গেছে। সেই লক্ষে যুগ যুগের দলীয় রক্তক্ষয়ী সংর্ঘষের প্রতিদ্বন্দ্বী আহসান হাবিব কামাল এর সাথে গোপন সমঝোতা করা হয়েছে।

ইতোপূর্বে কামাল – সরোয়ার দ্বন্দ্বে বরিশাল বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ, হামলা- পাল্টা হামলা, মামলা এবং খুনের ঘটনাও ঘটেছে। কয়েক যুগ ধরে বরিশাল বিএনপি ২ ভাগে বিভক্ত হয়ে আছে। সিটি নির্বাচনে আহসান হাবিব কামাল মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর বিএনপি নেতাকর্মীদের বঞ্চিত করে সরকার দলীয় লোক জনের সাথে শখ্যতা করে কাজ ভাগ বাটোয়ারার মাধ্যমে নিজের মসনদ টিকিয়ে রাখার অভিযোগ তৃণমুল বিএনপি নেতাকর্মীদের।

এছাড়াও মেয়র পুত্র রুপমের বিসিসিতে তৎকালীণ সময় একচ্ছত্র আধিপত্য তৃণমুল বিএনপিকে হতাশ করেছে। ফলে কামলা ঘড়ানার বিএনপি নেতাকর্মীরা ইউটার্ন করে অন্য বিএনপি নেতাদের দিকে ঝুকে পরে। বরিশাল বিএনপিতে আহসান হাবিব কামালের যে শক্ত বলয় ছিলো তা নিমিষেই ভঙ্গুরে পর্যবশিত হয়। আহসান হাবিব কামাল ও তার পুত্রের নানান অনিয়মের ফলে বরিশালের ত্যাগী, বঞ্চিত ও হয়রানী হওয়া নেতাকর্মীরা তাদের নিকট থেকে অনেকটা মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন।

বরিশাল বিএনপির ঐ সকল নেতাকর্মীরা বিভাগীয়, জেলা ও মহানগরের অন্যান্য নেতৃবৃন্দের নেতৃত্বে বিএনপির রাজনীতিতে সক্রিয় রয়েছেন। নগর বিএনপির সভাপতির পদে একাধিক ত্যাগী ও যোগ্য বিএনপি নেতাকর্মী থাকলেও শীর্ষ ২ নেতার গোপন শখ্যতায় তৃণমুল বিএনপিকে হতাশ করেছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে বরিশালের একাধিক বিএনপি নেতা প্রতিবেদককে জানিয়েছেন, নগর বিএনপিকে শক্তিশালী করতে লোভিং গ্রুপিং ও খুন জখমের রাজনীতির নেতৃত্ব দানকারী নেতাদের বাদ দিয়ে প্রকৃত কর্মীবান্ধব নেতৃত্ব নির্বাচিত করতে হবে ।

নেতৃবৃন্দ সঠিক সিদ্ধান্ত না নিলে আরো কয়েকযুগ পিছিয়ে যেতে পারে বরিশাল বিএনপির রাজনীতি। সরকার বিরোধী আন্দোলনে হাজার হাজার নেতাকর্মীরা হামলা মামলা ও কারাবরণ করলেও এই ২ প্রভাবশালী নেতা কর্মীদের কোনো খোজ খবর রাখেননি। কেবল মিছিলের সময় মাঠ পর্যায়ের নেতাদের কদর থাকে। কিন্তু বিপদের সময় তাদেরকে কাছে পাওয়া যায়না। এমন অভিযোগ বরিশালের সিংগভাগ নেতাকর্মীর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here