জ্বিন ছাড়ানোর কথা বলে ছাত্রীকে ধর্ষণ!

বরিশাল প্রতিনিধি: বরিশালে জ্বিন ছাড়ানোর নামে দশম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে কথিত কবিরাজ শংকর দেবনাথকে (৬০) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার বিকেলে মামলা দায়েরের পর শংকরকে গ্রেপ্তার করা হয়। বুধবার দুপুরে আদালতে সোপর্দ করা হলে বিচারক কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

গত সোমবার রাতে নগরীর বাজার রোডে কবিরাজ শংকরের আস্তনায় এই ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। শংকর দেবনাথের বাড়ি বানারীপাড়ায় হলেও সে নগরীর বাজার রোডে তার মেয়ের বাসায় আস্তানা করেছে।

গত কিছুদিন আগে মেয়েটি অসুস্থ হয়ে পড়লে ঢাকা থেকে শিক্ষার্থীর মা কবিরাজ শংকরের সাথে যোগাযোগ করেন। শিক্ষার্থীকে জ্বিনে ধরেছে বলে তাকে চিকিৎসার জন্য বরিশাল নিয়ে যেতে বলে শংকর।

বরিশালে গিয়ে মেয়েকে নিয়ে কবিরাজ শংকরের কাছে গেলে জ্বিনে ধরেছে জানিয়ে তার বাসায় রেখে যেতে বলে। গত সোমবার রাতে চিকিৎসার নামে ওই শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ করে শংকর। পরদিন মঙ্গলবার সকালে মেয়ের খোঁজ নিতে গেলে আগের রাতের ধর্ষণের কথা মাকে জানায় শিক্ষার্থী। এরপর তার মা কোতোয়ালী মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ করলে পুলিশ তাৎক্ষণিক ওই আস্তানায় অভিযান চালিয়ে শংকরকে গ্রেপ্তার করে।

কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি নুরুল ইসলাম জানান, নির্যাতিতা শিক্ষার্থীকে শের-ই বাংলা মেডিকেলের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে অভিযুক্ত ধর্ষক শংকরকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here