করোনা রোগীর সংস্পর্শে এলে কী করবেন?

নিউজ  ডেস্কঃকরোনা সংক্রমণের মধ্যে অফিস-আদালত, ব্যবসা-বাণিজ্য, দোকানপাট, যানবাহন সবই এখন খোলা। এর মধ্যে অনেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অফিস করছেন, বাইরের কাজকর্ম সারার চেষ্টা করছেন। সে জন্য অনেকের সংস্পর্শেও যেতে হচ্ছে। তবে ভয়ের ব্যাপার হচ্ছে, করোনার উপসর্গ না থাকা সত্ত্বেও অনেকে পজিটিভ হচ্ছেন। এদের সংস্পর্শে আসাটা অস্বাভাবিক কিছু নয়।

করোনার সব স্বাস্থ্যবিধি কড়াকড়িভাবে মেনে চলছেন। কিন্তু কোন প্রয়োজনে নিকটাত্মীয়ের সঙ্গে দেখা করলেন অথবা অফিসে কাজের ক্ষেত্রে একে অপরের কাছে যেতেই হচ্ছে। কিন্তু এমন যদি হয় এদের মধ্য থেকে হঠাৎ কেউ করোনায় আক্রান্ত হলেন, তখন কী করবেন? এমন হলে ভয় পাওয়াটা স্বাভাবিক। কিন্তু ভয় পাওয়া কিংবা আতঙ্কিত হওয়া যাবে না। বরং কীভাবে ভাইরাসটি প্রতিরোধ করবেন সেই বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়া জরুরি।

করোনা আক্রান্ত কারও সংস্পর্শে এলে যা করণীয়-

কোয়ারেন্টাইনে থাকা
প্রথমেই ১৪ দিনের জন্য কোয়ারেন্টাইনে চলে যান। করোনার উপসর্গ প্রকাশ পেতে সাধারণত ১০ থেকে ১৪ দিন লাগে। এ কারণে এ সময়টা বাড়ির অন্যদের থেকে আলাদা থাকুন।  এ সময় বাড়ির বাইরে যাবেন না কিংবা পরিবারের সদস্যদের সংস্পর্শে আসবেন না। যদি আপনি একা থাকেন তাহলে বন্ধু-বান্ধব কিংবা পরিবারের সদস্যদের আপনার প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র দরজায় পৌঁছে দেওয়ার অনুরোধ করুন। বাইরে থেকে আগত সবার প্রবেশ নিষিদ্ধ করুন।

লক্ষণসমূহ খেয়াল করুন
আপনার শরীরে করোনার কোন লক্ষণ যেমন- জ্বর, শ্বাসকষ্ট, কাশি, স্বাদ বা গন্ধ চলে যাওয়া, বমি বমি ভাব, সর্দি, গলা ব্যথা, ডায়রিয়া, মাংসপেশিতে ব্যাথা এসব দেখা দিচ্ছে কিনা সেদিকে লক্ষ্য রাখুন। অসুস্থতা বোধ করলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

করোনার পরীক্ষা
করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে আসার কমপক্ষে ৫ থেকে ৭ দিন পর নমুনা পরীক্ষা করান। ফল আসা পর্যন্ত কোয়ারেন্টাইনেই থাকুন। যদি ফল পজিটিভ আসে তাহলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নেবেন, আইসোশনে থাকবেন। তবে যদি আপনার ফল নেগেটিভ আসে এবং করোনার কোন লক্ষণ নাই তাহলেও ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন কোর্স শেষ করা জরুরি।

অন্যকে জানান
আপনার মধ্যে যদি করোনার কোনো লক্ষণ প্রকাশ না পায় বা পরীক্ষা নাও করে থাকেন, তবুও অন্যকে জানিয়ে দেওয়া জরুরি যে আপনি সংক্রমিত ব্যক্তির সংস্পর্শে এসেছেন। কারণ আপনি যদি সংক্রমিত হন তবে আপনার মাধ্যমে অন্যরাও আক্রান্ত হতে পারেন। তাই আগেই সাবধান করে দিন আপনার থেকে দূরে থাকতে।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here