শ্বশুরবাড়ি থেকে গরু চুরি, কোরবানির হাটে হাতেনাতে ধরা জামাই!

সিলেট প্রতিনিধি:ঈদুল আজহা ঘিরে সারা দেশে কোরবানির পশুর বেচাবিক্রি জমে উঠেছে। হাটে হাটে চলছে ক্রেতা-বিক্রেতাদের দর কষাকষি। দেশের বিভিন্ন স্থানে বসানো হয়েছে অস্থায়ী পশুর হাট। বিভিন্ন অঞ্চল থেকে বেপারিরা সেইসব হাটে গরু নিয়ে আসছেন।

কিন্তু তাই বলে শ্বশুরবাড়ি থেকে গরু চুরি করে হাটে তুলবেন জামাই! এমনই অবাক করা ঘটনা ঘটেছে সিলেটের বিয়ানীবাজারে। শ্বশুরবাড়ি থেকে গরু চুরি করে পার্শ্ববর্তী উপজেলার কোরবানির পশুর হাটে সেই গরু বিক্রি করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়েছেন জামাই।

এক পর্যায়ে চোরাই গরুসহ সোহেল আহমেদ (২৮) নামে ওই যুবককে বিয়ানীবাজার পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে স্থানীয় লোকজন।

জানা যায়, গতকাল বুধবার বিকেলে বড়লেখা উপজেলার বর্ণি ইউনিয়নের ফকিরবাজার হাটে চোরাই গরু নিয়ে আসেন সোহেল। তিনি বিয়ানীবাজারের লাউতা ইউনিয়নের নন্দিরফল এলাকার মোজাম্মেল আলীর ছেলে।

গত মঙ্গলবার রাতে বিয়ানীবাজারের মোল্লাপুর ইউনিয়নের পাতন উছপাড়া গ্রাম থেকে চাচা শ্বশুরের একটি গরু চুরি করে নিয়ে যান সোহেল। বুধবার সেই গরুটিই ফকিরবাজার কোরবানির হাটে বিক্রি করার জন্য নিয়ে আসেন।

হাটে গরুর দাম তুলানামূলকভাবে কম চাওয়া ও তাড়াহুড়ো করতে দেখে সোহেলের ওপর স্থানীয় লোকজনের সন্দেহ হয়। পরে তারা তাকে আটক করে বর্ণি ইউনিয়ন পরিষদে রাখেন। খবর পেয়ে বিয়ানীবাজার থানা পুলিশ সোহেলকে আটক করে।

বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অবনী শংকর কর জানিয়েছেন, চোরাই গরুসহ সোহেল আহমেদ নামের এক যুবককে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় বুধবার রাতে গরুর মালিক বিয়ানীবাজার থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

বৃহস্পতিবার সোহলকে আদালতে পাঠানো হবে বলেও জানান ওসি অবনী শংকর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here