ওষুধ খেয়ে পিরিয়ডে বাধা দেয়ার পরিণতি

নিউজ  ডেস্কঃ প্রতি মাসেই নারীদের পিরিয়ডকালীন সময়ে বেশ নাস্তানাবুদ হতে হয়। অনেকে তো ওষুধ খেয়ে এর বিলম্ব ঘটান। তবে সাময়িক সুবিধা দিলেও এই ধরনের ওষুধ নারীর প্রজননতন্ত্রের ক্ষতি করে।

নারীদের প্রতিমাসের নিয়মিত ঘটনা হলো পিরিয়ড। অনেকে দীর্ঘ সফরে বেড়াতে যাওয়া কিংবা কোনো জরুরি কাজের সময় এ সমস্যার কারণে অস্বস্তিতে পড়েন। তাই ওষুধ খেয়ে পিরিয়ডের সময় এগিয়ে আনেন কিংবা পিছিয়ে দেন। সাময়িক সুবিধা দিলেও এই ধরনের ওষুধ নারীর প্রজননতন্ত্রের ক্ষতি করে। যেসব ক্ষতি হয় এক্ষেত্রে তা জেনে নিন-

> প্রায়শই যারা এই ধরনের ওষুধ সেবন করে স্বাভাবিক পিরিয়ডের চক্রে পরিবর্তন আনছেন তাদের ক্ষেত্রে দীর্ঘমেয়াদে এ চক্রে বিশৃঙ্খলা তৈরি হয়। মাত্র কয়েকদিনের পরিবর্তন ঘটায় ঋতুস্রাবের চক্র বিশৃঙ্খল হয়ে উঠতে পারে।

> এক্ষেত্রে পরবর্তী পিরিয়ডের সময় ভারী রক্তপাত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। গবেষণায় দেখা গেছে, ২০ শতাংশ নারীই ওষুধ সেবনের পর পরবর্তী কয়েকমাস ভারী রক্তপাতযুক্ত পিরিয়ডে ভুগেছেন।

> পিরিয়ডে বিলম্ব করার ওষুধ এবং জন্ম নিয়ন্ত্রক ওষুধ দীর্ঘ সময় সেবন করলে মারাত্বক রোগের আশঙ্কা রয়েছে। ডিপ ভেইন থ্রম্বোসিস বা রক্ত জমাট বেঁধে ধমনি আটকে যাওয়া, পালমোনারি এমবোলিজম ইত্যাদি রোগ হতে পারে প্রাণঘাতী।

এছাড়াও এমন ওষুধের সাধারণ পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়াগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো- শারীরিক অসুস্থতা, ডায়রিয়া, যোনিপথে অপ্রত্যাশিত রক্তক্ষরণ, ব্যথা, পেশিতে টান ইত্যাদি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here