অদৃশ্য কফিন নিয়ে স্কুল পরিচালকের স্ট্যাটাস, শ্রেণিকক্ষে মিলল লাশ

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:কুড়িগ্রামের উলিপুরে প্যারাগন প্রি-ক্যাডেট স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। একইসঙ্গে লাশের পাশ থেকে একটি চিরকুট উদ্ধার করা হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে স্কুলের শ্রেণিকক্ষ থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। নিহত এসএম রওশন সরদার উপজেলার বজরা ইউপির বজরা সাদুয়া দামারহাট সরদারপাড়ার নুরুজ্জামান সরদারের ছেলে। তিনি ওই স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ছিলেন।

স্থানীয়রা জানায়, প্যারাগন প্রি-ক্যাডেট স্কুলের একটি শ্রেণি কক্ষের আড়ার সঙ্গে রশিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেন রওশন সরদার। কিন্তু আত্মহত্যা করলেও তার পা কক্ষের মেঝেতে ছিল। এছাড়া লাশের পাশে একটি চিরকুট পাওয়া যায় ও রশিতে ঝুলে থাকার ধরন নিয়ে নানা রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। তদন্তের স্বার্থে চিরকুটের লেখা প্রকাশ করেনি পুলিশ।

এদিকে সোমবার রাতে নিজের ব্যবহৃত ফেসবুক আইডি থেকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন ওই পরিচালক। সেখানে তিনি লিখেছিলেন, ‘মাঝে মাঝে মনে হয় কেউ যেন আমাকে অদৃশ্য একটা কফিনে শুইয়ে দিচ্ছে।’ ঘটনাটি হত্যা না আত্মহত্যা এ নিয়ে জনমনে ধূম্রজালের সৃষ্টি হয়েছে।

নিহতের স্বজনরা জানান, এসএম রওশন ওই স্কুলেই থাকতেন। স্কুলের পাশেই পরিবার নিয়ে থাকতেন তার ছোট ভাই জাফর সাদেক সরদার হিরু। মঙ্গলবার সকালে ছোট ভাইয়ের স্ত্রী নাশতা দিতে গিয়ে দেখেন শ্রেণিকক্ষের আড়ার সঙ্গে রওশন ঝুলছেন। তখন তিনি পরিবারের সবাইকে খবর দেন।

উলিপুর থানার ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া উদ্ধার হওয়া চিরকুটটি তদন্তের স্বার্থে প্রকাশ করা যাচ্ছে না। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর আসল কারণ জানা যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here