কথিত সন্ত্রাসী ছালা গ্রেপ্তার অধরা রয়ে গেলো অপর সন্ত্রাসী কালাম বেপারীর ও তার পোষ্য সন্ত্রাসীরা

বিশেষ প্রতিনিধি বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জ ও হিজলা উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকার কথিত সন্ত্রাসী ছালাউদ্দীন ছালা পুলিশের হাতে মঙ্গলবার রাতে মেহেন্দিগঞ্জ পৌর এলাকা হতে গ্রেপ্তার হয়েছেন। আটককৃত ছালার শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত জখম থাকায় তাকে হ্যান্ডক্যাপ এবং দড়ি বাঁধা অবস্থায় মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়। মেহেন্দিগঞ্জ থানা পুলিশ বলছেন তার বিরুদ্ধে ১০টি মামলা রয়েছে এবং তাকে স্থানীয়রা আটক করে মারধর করে রক্তাক্ত অবস্থায় পুলিশের হাতে সোপর্দ করেন। আহতের পরিবারের দাবী তাকে অপর কথিত সন্ত্রাসী ও একাধিক মামলার আসামী ভূমিদস্যু, জলদস্যু, নদীতে নৌযান থেকে চাদা উত্তোলনকারী হিজলার ধুলখোলা ইউনিয়নের কালাম বেপারী ও তার পোষ্য সন্ত্রাসীরা হত্যার উদ্দ্যশে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে জখম করেন। সংবাদ পেয়ে থানা পুলিশ এস আই নাসির ঘটনাস্থলে গিয়ে ছালাকে উদ্ধার করতে গিয়ে নিজেই ওই হামলাকারীদের হাতে আহত হন। পরবর্তীতে তিনি হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন। এলাকাবাসী জানান ছালা গ্রেপ্তার হলেও এলাকায় শান্তি ফিরবে না, এলাকায় শান্তি ফিরাতে হলে অপর কথিত সন্ত্রাসী ও সন্ত্রাসীদের গডফাদার কালাম বেপারী এবং তার দোষরদের গ্রেপ্তার করতে হবে। বর্তমানে ওই অঞ্চলে সাধারন মানুষের আতংকের নাম কালাম বেপারী ও তার দোষররা। এরা গত ২/৩দিন আগে মেহেন্দিগঞ্জের উলানিয়ায় মুদি দোকানে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুর -লুটপাট চালায়, গত ১৫/২০ দিন আগে ওই ইউনিয়নের সলদি লক্ষীপুর গ্রামের মেম্বার আঃ রব ঢালীর ২টি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে তালা ঝুলানো ও ঔই পরিবারকে সাজানো মামলায় হয়রানীর করাসহ এলাকায় ব্যাপক ত্রাস সৃষ্টি করে যাচ্ছেন। এই ঘটনায় এলাকায় তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দার ঝড় উঠছে। অভিযোগ উঠেছে কথিত সন্ত্রাসী কালাম বেপারীর একের পর এক বেপরোয়া সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে জনজীবন অতিষ্ঠ। চরদখল, মেঘনায় বিভিন্ন নৌযান থেকে চাদা উত্তোলন, শালিস মিমাংসার নামে অর্থ হাতিয়ে নেওয়া, হামলা মামলা দিয়ে নীরিহ মানুষকে হয়রানী করাসহ বহুমুখি অপরাধ কর্মকান্ড যেন লাগামহীন ঘোড়ার ন্যায় চলছে। প্রশ্ন স্থানীয়দের আর কত সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করলে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিবে পুলিশ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here