ঢাকার বেশ কয়েকটি এলাকায় রেড জোন ঘোষণা করে আসছে ছুটি

নিজস্ব প্রতিনিধিঃকরোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব মোকাবিলায় এলাকাভিত্তিক বিভিন্ন রেডজোনে সাধারণ ছুটি বাস্তবায়ন করছে সরকার। তারই ধারাবাহিকতায় রাজধানী ঢাকার বেশ কয়েকটি এলাকায়ও রেড জোন ঘোষণা করে সাধারণ ছুটি দেয়া হবে। 

বুধবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে এ তথ্য জানা গেছে। 

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে নতুন করে আর ছুটি বাড়ানো হবে না বলে আগেই সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। তবে যে এলাকা রেড জোনের আওতায় থাকবে, সেখানে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হবে। আর এ সিদ্ধন্তের আলোকে সর্বপ্রথম পরীক্ষামূলকভাবে রাজধানীর পূর্ব রাজাবাজার এলাকাকে রেড জোন হিসেবে ঘোষণা দিয়ে লকডাউন করা হয়।

এরপর রোববার রাতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা প্রজ্ঞাপনে চট্টগ্রাম, বগুড়া, চুয়াডাঙ্গা, মৌলভীবাজার, নারায়ণগঞ্জ, হবিগঞ্জ, মুন্সীগঞ্জ, কুমিল্লা, যশোর ও মাদারীপুর জেলার বিভিন্ন এলাকাকে রেড জোন হিসেবে ঘোষণা করা হয় এবং এসব জায়গায় সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়।

প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়, চট্টগ্রামের উত্তর কাট্টলি এলাকায় (বিসিক শিল্পনগরী ব্যতীত) ২১ জুন থেকে ৮ জুলাই পর্যন্ত সাধারণ ছুটি থাকবে।

বগুড়া পৌরসভার চেলোপাড়া, নাটাইপাড়া নারুলী, জলেশ্বরীতলা, সূত্রাপুর, মলতিনগর, ঠনঠনিয়া, হাড়িপাড়ি ও কলোনি এলাকায় ২১ জুন থেকে ৫ জুলাই পর্যন্ত সাধারণ ছুটি।

চুয়াডাঙ্গার দর্শনা পৌরসভার ৫ ও ৭ নং ওয়ার্ডে ২১ জুন থেকে ৮ জুলাই পর্যন্ত সাধারণ ছুটি।

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার সবুজবাগ, মুসলিম্বাগ, লালবাগ, রুপপুর, বিরামপুর, কালীঘাট এলাকা, ক্যাথলিক মিশন রোড এবং কুলাউড়া পৌরসভার মাগুর ও মনসুর এলাকা, বরমচাল ইউনিয়নের কিছু এলাকায় ২১ জুন থেকে ৫ জুলাই সাধারণ ছুটি।

নারায়ণগঞ্জ জেলার রুপগঞ্জ ইউনিয়নের কয়েকটি এলাকায় ২১ জুন থেকে ২ জুলাই পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ও লকডাউন জারি থাকবে।

হবিগঞ্জ পৌরসভার ৬ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ড; চুনারুঘাট উপজেলার দেওরঘাট, রানীগাঁও, উবাহাটা ও আজমীরিগঞ্জ ইউনিয়ন এবং মাধবপুর পৌর এলাকায় ২১ জুন থেকে ৯ জুলাই সাধারণ ছুটি ।

মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের মাঠপাড়া এলাকায় ২১ জুন থেকে ৯ জুলাই সাধারণ ছুটি।

যশোরের অভয়নগর উপজেলার চলিশিয়া, পিয়ারা ও বাঘুটিয়া ইউনিয়ন; অভয়নগর পৌরসভার ২, ৪, ৫, ৬ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ড; চৌগাছা পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ড, ঝিকরগাছা পৌরসভার ২ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ড, কেশবপুর পৌরসভার ১ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ড, সদর উপজেলার ৪ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ড এবং আরবপুর ও উপশহর ইউনিয়ন এবং বেনাপোল পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড ও শার্শা ইউনিয়নে ২১ জুন থেকে ৬ জুলাই পর্যন্ত সাধারণ ছুটি।  

এছাড়া যশোরের কয়েকটি উপজেলার আরো কয়েকটি ওয়ার্ডে ভিন্ন ভিন্নভাবে ২১ জুন থেকে পর্যায়ক্রমে ৬, ৭, ৮, ৯ জুলাই পর্যন্ত সাধারণ ছুটির আওতায় থাকবে।

মাদারীপুর পৌরসভার ১, ২, ৩, ৪, ৫, ৬ ও ৭ নম্বর; বাহাদুরপুর, দুধখালী, মস্তফাপুর, কেন্দুয়া ও রাস্তি ইউনিয়ন, শিবচর পৌরসভার ১, ৪, ও ৫ নং ওয়ার্ডসহ আরো কয়েকটি এলাকা; কালকিনী পৌরসভার ১, ৪, ৫, ৭, ৮ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডসহ আরো কয়েকটি এলাকা; রাজৈর পৌরসভার ১, ২, ৩, ৫, ৭ ও ৮ নম্বর ওয়ার্ডসহ আরো কয়েকটি এলাকায় ২১ জুন থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত সাধারণ ছুটি জারি থাকবে।

এরপর সোমবার রাতে আরো ৫ জেলার বিভিন্ন এলাকায় সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়। জেলাগুলো হলো- ফরিদপুর, মানিকগঞ্জ, ব্রাক্ষণবাড়িয়া, নরসিংদী এবং কুষ্টিয়া। 

আর সর্বশেষ মঙ্গলবার রাতে ৪ জেলার রেডজোন ঘোষিত বিভিন্ন এলাকায় সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়। এরই ধরাবাহিকতায় ঢাকার বেশ কয়েকটি এলাকায় রেডজোন ঘোষণা করে সাধারণ ছুটি বাস্তবায়ন করা হবে। 

এ বিষয়ে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, ঢাকার বেশ কয়েকটি জায়গায় ছোট ছোট আকারে রেড জোন ঘোষণা করা হবে। তালিকা পেলেই আমরা ছুটি ঘোষণা করব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here