বোমা ফাটালেন আজাদ, দেশে করোনা থাকবে আরও ‘২-৩ বছর’

নিজস্ব প্রতিনিধিঃগত তিন মাসের অধিক সময় ধরে বাংলাদেশকে গ্রাস করেছে করোনা ভাইরাস। আগামী কয়েক মাস তো দূরের কথা আগামী দুই-তিন বছরেই বাংলাদেশ থেকে এই ভাইরাস দূর হবে না।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) কোভিড-১৯ নিয়ে আয়োজিত নিয়মিত অনলাইন বুলেটিনে অংশ নিয়ে এতথ্য জানান স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ।

বেশকিছু দিন পর হঠাৎ বুলেটিনে উপস্থিত হোন অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ। দেশবাসীকে হতাশাজনক তথ্য দিয়ে তিনি বলেন, ‘চলমান পরিস্থিতি এবং অভিজ্ঞতা বিচারে বিশ্বে ও বাংলাদেশে আরও দুই-তিন বছর করোনাভাইরাস সংক্রমণ চলবে।’

তিনি বলেন, ‘‍বিশ্বের বিভিন্ন দেশের অভিজ্ঞতায় এবং জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞগণের পরামর্শ বা অভিজ্ঞতা অনুযায়ী করোনা পরিস্থিতি আগামী এক, দুই বা তিন মাসেই শেষ হচ্ছে না। এটি দুই থেকে তিন বছর বা তার চেয়েও বেশি দিন স্থায়ী হবে। যদিও সংক্রমণের মাত্রা উচ্চ হারে নাও থাকতে পারে।’

ডা. আবুল কালাম আজাদ বলেন, বাংলাদেশ একটি জনবহুল এবং অত্যন্ত ঘনবসতিপূর্ণ দেশ, অপর পক্ষে করোনা ভাইরাসও অত্যন্ত ছোঁয়াচে ভাইরাস। এ কারণে অসতর্ক চলাফেরা এবং স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে মেনে না চললে এ দেশে সংক্রমণের হার মোকাবিলা করা কঠিন। দীর্ঘদিন অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড বন্ধ রাখলে কর্মহীনতা, আয় রোজগারের পথ বন্ধ হওয়া এবং অন্যান্য সামাজিক অর্থনৈতিক কারণেও ব্যাপক অপুষ্টি, রোগবালাই এবং মৃত্যু ঘটতে পারে। সে কারণে জীবন ও জীবিকার মধ্যে ভারসাম্য রক্ষা করার জন্য সরকারকে কাজ করতে হচ্ছে।

বিশ্ব থেকে নেওয়া অভিজ্ঞতা এবং বাংলাদেশের পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করে জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের বিশ্লেষণের কথা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘কিছুকাল পরে বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণের উচ্চহার কমে আসতে পারে, কিন্তু করোনা পরীক্ষার সংখ্যা বাড়ানো হলে অনেক লুকায়িত ও মৃদু উপসর্গের রোগীও শনাক্ত হবেন। সেক্ষেত্রে সংক্রমিত ব্যক্তির সংখ্যা পরিবর্তন দৃষ্টিগোচর নাও হতে পারে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here