কলেজ ছাত্রীর শ্লীলতাহানি ছাত্রলীগ নেতা গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিনিধিঃগৌরনদী উপজেলা সদরে ছোট বোন নগরীর হাতেম আলী কলেজের অনার্স শেষবর্ষের ছাত্রীর শ্লীলতাহানির প্রতিবাদ করায় বড় বোনের উপর ছাত্রলীগ নেতা আরিফ মিয়া সহযোগিদের নিয়ে হামলা চালিয়েছে।
এ ঘটনায় বড় বোন বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ মামলার প্রধান আসামি সরকারী গৌরনদী কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ক্রীড়া সম্পাদক ও কলেজ ছাত্রলীগের সদস্য আরিফ মিয়াকে গ্রেফতার করেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে গ্রেফতারকৃতকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।
এজাহারে জানা গেছে, বাদির ছোট বোন নগরীর হাতেম আলী কলেজের অনার্স শেষবর্ষের ছাত্রীকে (২০) প্রায়ই উত্ত্যক্ত করে আসছিলো ছাত্রলীগ নেতা আরিফ মিয়া ও তার সহযোগিরা। কলেজছাত্রী বিষয়টি তার পরিবারকে জানালে তারা বখাটে আরিফকে শ্বাসিয়ে দেয়। এতে আরিফ ক্ষিপ্ত হয়। বুধবার বিকেলে পৌর সদরের মৎস্য খামারের সামনে বাদি ও তার কলেজ পড়-য়া ছোট বোন পৌঁছলে দক্ষিণ পালরদী গ্রামের বখাটে আরিফ তার সহযোগিদের নিয়ে হাজির হয়ে অশ্লীল ও কুরুচিপূর্ন কথা বলে কলেজ ছাত্রীর শ্লীলতাহানি করে। এ সময় ওই কলেজ ছাত্রীর বড় বোন প্রতিবাদ করায় আরিফ মিয়া তার সহযোগিদের নিয়ে হামলা চালিয়ে তারও শ্লীলতাহানি করে ওড়না নিয়ে যায়।
কলেজ ছাত্রীর মা (৫০) অভিযোগ করে বলেন, বখাটে আরিফ মিয়াকে শ্বাসিয়ে দেয়ায় সে বাড়িতে এসে প্রায়ই আমার মেয়েদের ক্ষতি করার হুমকি দিয়ে আসছিলো।
গৌরনদী মডেল থানার ওসি গোলাম ছরোয়ার বলেন, কলেজছাত্রী ও তার বড় বোনকে শ্লীলতাহানি ও হামলার ঘটনায় বড় বোন বাদি হয়ে বুধবার রাতে গৌরনদী মডেল থানায় ছাত্রলীগ নেতা আরিফ মিয়াকে প্রধান আসামি করে তার তিন সহযোগিসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে আরিফ মিয়াকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে।
স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে, আরিফ মিয়ার বখাটেপনায় এলাকার স্কুল কলেজগামী ছাত্রীরা দীর্ঘদিন থেকে অতিষ্ঠ হয়ে পরেছে। সম্প্রতি সময়ে আরিফ একাধিক স্কুল ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত ও গৌরনদী গার্লস হাই স্কুল এ- কলেজের এক ছাত্রীকে তুলে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে রাজনৈতিক নেতাদের চাঁপের কারণে ওই ছাত্রীকে ফেরত দেয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here