পটুয়াখালী কলাপাড়া উপজেলা ও পৌর এলাকায় ত্রান কার্যক্রম মনিটরিং টিম গঠন

 

সাঈদ ইব্রাহিম,পটুয়াখালী ঃপটুয়াখালীর কলাপাড়া ও পৌর এলাকায় করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির কারনে সৃষ্ট দূর্যোগের ফলে নিম্ন আয়ের মানুষ যেমন বস্তিবাসী, বেকার শ্রমিক, চা শ্রমিক, রেষ্টুরেন্ট শ্রমিক, মটরযান শ্রমিক, চা দোকানদার, দিনমজুর, ভবঘুরে, প্রতিবন্ধী ব্যাক্তি, স্বামী পরিত্যাক্তা, রিক্সা ও ভ্যান চালক, ভিক্ষুক, বেদে ও হিজরা সম্প্রদায়, ও পথশিশুদের মাঝে প্রয়োজন অনুযায়ী ত্রান সামগ্রী বিতরন কাজ চলমান।ভোটার আইডি কার্ড না থাকার অযুহাতে কোন অসহায় ভাসমান, গরীব ও দুস্থ ব্যাক্তিদের ত্রান বিতরন থেকে বাদ দেওয়া যাবেনা।
ত্রান বিতরন কার্যক্রমে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত কল্পে এই মনিটরিং টিম গঠন করেন কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু হাসনাত মোঃ সহিদুল হক।
কমিটিতে উপজেলা কমিটির আহবায়ক করা হয়েছে আব্দুল মান্নান, উপজেলা কৃষি অফিসার কলাপাড়া।
সদস্য হিসেবে রয়েছেন আব্দুল মোতালেব তালুকদার, সাধারণ সম্পাদক কলাপাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগ, ড.শহিদুল ইসলাম বিশ্বাস, সহ সভাপতি কলাপাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগ, শফিকুল আলম বাবুল, ভাইস চেয়ারম্যান কলাপাড়া উপজেলা পরিষদ, মোঃ কুদ্দুস মিয়া, মৎস্য সম্প্রসারণ কর্মকর্তা কলাপাড়া, সাহাবুদ্দিন দুলাল বীর মুক্তিযোদ্ধা, দিদারউদ্দীন মাসুম, সভাপতি কলাপাড়া ব্যাবসায়ী সমিতি, মেজবা উদ্দিন মান্নু, সাবেক সভাপতি কলাপাড়া প্রেসক্লাব, মিলন কর্মকার রাজু ৭১ টিভি।
পৌর কমিটিতে আহবায়ক হিসেবে রয়েছে হাবিবুর রহমান, উপজেলা প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা কলাপাড়া, সদস্য হিসেবে রয়েছেন সৈয়দ নাসিরুদ্দিন, সহ সভাপতি কলাপাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগ, সহিনা পারভীন সীমা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কলাপাড়া উপজেলা পরিষদ, আব্দুল্লাহ আল মামুন, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা কলাপাড়া, হুমায়ূন কবির, সভাপতি কলাপাড়া প্রেসক্লাব, ফিরোজ সিকদার, সদস্য জেলা পরিষদ পটুয়াখালী, , আব্দুল মালেক আকন, সভাপতি মহিপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ, মনিরুল ইসলাম, সভাপতি মহিপুর প্রেসক্লাব, শাহজাহান মিয়া বীর মুক্তিযোদ্ধা, প্যানেল মেয়র কুয়াকাটা পৌরসভা।
উভয় কমিটিতে ১১ জন করে মোট ২২ জনকে রাখা হয় মনিটরিং করার জন্য।
এই টিমকে বর্নিত জনগোষ্ঠীর মাঝে পৌর ও ইউনিয়ন ভিত্তিক অগ্রাধিকার তালিকা হতে যাহাতে পর্যায়ক্রমে সকল ত্রান কার্যক্রম সর্বোচ্চ স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সাথে পরিচালনা হয় তার সকল প্রয়োজনীয় সহযোগিতা সহ প্রতি সপ্তাহে একটি করে প্রতিবেদন দাখিল করার অনুরোধ করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here