৪৬ বস্তা চালসহ যুবলীগ ও আ’লীগের নেতা আটক

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধিঃকিশোরগঞ্জের তাড়াইলে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ৪৬ বস্তা চালসহ উপজেলার দামিহা ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি রমজান আলীকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার (১৩ এপ্রিল) গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার তারেক মাহমুদ তাড়াইল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হাসমত আলীর সহযোগিতায় রাহেলা গ্রামে অভিযান চালিয়ে ১৭ বস্তা চালসহ উপজেলার দামিহা ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি রমজান আলীকে আটক করেন।

পরে তাকে তাড়াইল থানায় নিয়ে আসা হয়। পরে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে রমজান আরো ২৯ বস্তা চালের সন্ধান দিলে সেগুলোও উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, রাহেলা গ্রামে দামিহা ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ডিলার আইনুল ইসলামের ভগ্নিপতি আবু খার বাড়ির গোয়ালঘরে পাচারের জন্য ওই চাল মজুদ করে রাখা হয়েছিল।

তাড়াইল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হাসমত আলী বলেন, খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১৭ বস্তা চাল কালোবাজারে বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে ডিলার আইনুলের ভগ্নিপতি আবু খার গোয়াল ঘরে রাখা হয়েছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ইউএনও স্যারসহ আমি অভিযান চালিয়ে চালসহ ডিলারের ভাই সাবেক যুবলীগ নেতা রমজানকে আটক করে থানায় নিয়ে আসি। পরে আরো ২৯ বস্তাসহ মোট ৪৬ বস্তা চাল উদ্ধার করা হয়।

তাড়াইল থানার ওসি মো. মুজিবুর রহমান বলেন, ৪৬ বস্তা চালসহ কালোবাজারির অভিযোগে আটক রমজানের বিরুদ্ধে ১৯৭৪ সনের বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

অন্যদিকে কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকা কেজির ৩৯ বস্তা চাল কালোবাজারে বিক্রির ঘটনায় নিখিল চন্দ্র সরকার নামে আওয়ামী লীগের এক নেতা ও নাছির উদ্দিন নামে এক চাল ব্যবসায়ীকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার (১৩ এপ্রিল) ভোর রাত ৩টার দিকে উপজেলার করগাঁও এলাকা থেকে কালোবাজারে চাল বিক্রি করার সময় তাদের হাতেনাতে আটক করা হয়।

আটক হওয়া আওয়ামী লীগ নেতা নিখিল চন্দ্র সরকার উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নের ডিলার সেবা এন্টারপ্রাইজের স্বত্তাধিকারি। এছাড়া ক্রেতা চাল ব্যবসায়ী নাছির উদ্দিনও স্থানীয় আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত বলে জানা গেছে।

কটিয়াদী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এম.এ জলিল জানান, সোমবার (১৩ এপ্রিল) ভোর রাত তিনটার দিকে উপজেলার করগাঁও এলাকা থেকে ডিলার কর্তৃক কালোবাজারে বিক্রি করার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আশরাফুল আলম ও কটিয়াদী থানা পুলিশের নেতৃত্বে তাদেরকে আটক করা হয়।

এসময় ফারুক মিয়া নামে আরেক চাল ব্যবসায়ী পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও ওসি এম.এ জলিল জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here