করোনায় আক্রান্ত চিকিৎসক, সিলেটের হাউজিং এস্টেট লকডাউন

সিলেট প্রতিনিধিঃসিলেটে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এক চিকিৎসক। বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর একটি আবাসিক এলাকা লকডাউন করা হয়েছে। রোববার সন্ধ্যায় বিষয়টি জানার পর রাতেই হাউজিং এস্টেট এলাকা লকডাউন করে প্রশাসন।

করোনা আক্রান্ত চিকিৎসক ওই এলাকার বাসিন্দা। তিনি সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কর্মরত ছিলেন। তাছাড়া নগরের একটি ইবনে সিনা হাসপাতালে প্রাইভেট প্র্যাকটিস করতেন।

এদিকে করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হওয়ার পর সিলেটে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে চিকিৎসকদের মধ্যে বেশি আতঙ্ক বিরাজ করছে। আক্রান্ত চিকিৎসক গত ১০/১২ দিন থেকে ইবনে সিনা হাসপাতালে চেম্বারে রোগী না দেখলেও হাসপাতালে ভর্তি কয়েকজন বিদেশফেরত রোগীকে চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছেন। গত শনিবারও তিনি ইবনে সিনা হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসাধীন এক রোগীকে দেখে এসেছেন বলে একটি সূত্র জানিয়েছে।

সিলেটের সিভিল সার্জন প্রেমানন্দ মণ্ডল বলেন, ওই চিকিৎসক করোনাভাইরাসে আক্রান্তের বিষয়টি শনাক্তের পর রাতেই তাকে সিলেটের শহীদ শামসুদ্দিন হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে তার অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। তার পরিবারের সদস্যদের লকডাউন করা হয়েছে।

সিলেট সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর ও হাউজিং এস্টেট এলাকার বাসিন্দা রেজাউল হাসান কয়েস লোদী বলেন, ওই চিকিৎসক প্রতিদিন সকালে এলাকায় হাঁটাহাঁটি করতেন। তবে তিনি কয়েকদিন ধরে হাঁটাহাঁটি করেননি। করোনা শনাক্তের পর রাতে প্রশাসনের মাধ্যমে পুরো এলাকা লকডাউন করে রাখা হয়েছে।

সিলেট বিমানবন্দর থানার ওসি মো. সাহাদাত হোসেন বলেন, কেবল ওই চিকিৎসকের বাড়ি নয়, আমরা হাউজিং এস্টেটের মূল ফটক বন্ধ করে দিয়েছি। আপাতত কাউকে প্রবেশ করতে বা বাইরে বের হতে দেয়া হচ্ছে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here