বাবুগঞ্জে অসহায় কমলার শেষ সম্বল বসতঘর পুড়ে ছাই!

আরিফ হোসেন: ১২ বছর আগে স্বামীকে হারিয়ে ছোট ছোট তিন কন্যাকে নিয়ে জীবন যুদ্ধ শুরু করেন বাবুগঞ্জের চাঁদপাশা ইউনিয়নের ঘটকেরচর গ্রামের মৃত সুলতান হাওলাদারের স্ত্রী কমলা বেগম। গার্মেন্টস কর্মী হিসাবে কাজ করে তিলে তিলে জমানো মেয়েদের টাকায় টিন সেট ঘর উত্তোলন করেন কমলা। শিঘ্রই মেয়ে বিয়ে দেওয়ার জন্য ঘরের আসবাবপত্রসহ বিভিন্ন প্রয়োজনীয় মালামাল ক্রয় করেন তিনি। কিন্ত দূর্ভাগ্যের বিষয় কমলার স্বপ্ন স্বপ্নই রয়ে গেল। এক মূহূর্তেই স্বপ্ন ভেঙ্গে চুরমার হয়ে গেছে তার। শনিবার দুপুর ১২:৩০ মিনিটের দিকে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে অসহায় কমলার মাথা গোঁজার শেষ সম্বল বসত ঘরের সাথে দীর্ঘ দীনের স্বপ্ন পুড়ে ছাইয়ে পরিনত হয়।
কমলা ও স্থানীয়রা বলেন, দুপুরে মাঠ থেকে সিম তুলে বাড়ি ফিরে দেখে তার ঘর আগুনে পুরে ছাই হয়ে যাচ্ছে। ডাকচিৎকার শুনে স্থানীয়রা ছুটে আসে। বাবুগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশনে খবর দিলে তারা আসার পূর্বেই বসতঘরটি ভূস্মিভুত হয়। ধারনা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক সকসার্কিটের কারনে আগুনের সূত্রপাত হয়।
স্থানীয়রা বলেন, ঘরসহ মেয়ে বিয়ে দেওয়ার জন্য মালামাল ও নগদ টাকাসহ ৪ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here