বাগেরহাটে শতবর্ষী মসজিদের নাম বদলের চেষ্টা, এলাকায় উত্তেজনা

মোরেলগঞ্জ প্রতিনিধি : বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলার পল্লীতে একটি শতবর্ষী জামে মসজিদের নাম বদলের চেষ্টার বিরোধীতা করায় মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদকসহ মুসল্লিদের উপর হামলা ও মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানীর অভিযোগ উঠেছে। এঘটনায় এলাকায় দেখা দিয়েছে উত্তেজনা।

এলাকাবাসী জানান, মোড়েলগঞ্জ উপজেলার চিংড়াখালী ইউনিয়নের “পশ্চিম চিংড়াখালী মুন্সিবাড়ী জামে মসজিদটি’ ১৮২০ সালে স্থানীয় মুসল্লিদে নামাজ পড়ার জন্য প্রতিষ্ঠা করা হয়। সেই থেকে এই জামে মসজিদটির সকল কার্যক্রম ওই নামেই চলে আসছিল। কিছুদিন আগে একই গ্রামের কুয়েত প্রবাসি রফিকুল ইসলাম টিপু মুন্সি এই জামে মসজিদটির নাম বদল করে ‘শেখ মহব্বত উল্লাহ জামে মসজিদ’ নাম দিয়ে একটি সাইনবোর্ড মসজিদটির গায়ে টানিয়ে দেয়।

মুসল্লিরা ক্ষিপ্ত হয়ে সাইনবোর্ডটি সরিয়ে ফেললে। এঘটনায় প্রতিপক্ষের হামলায় মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. শামীম হাওলাদারসহ কয়েকজন আহত হন। এঘটনার পর মোঃ রফিকুল ইসলাম টিপুর স্ত্রী বাদী হয়ে উল্টো মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. শামীম হাওলাদারসহ ৪ জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা দায়ের করেন।

মসজিদটির মুসল্লি আলকাজ হাওলাদার (৬০) জানান, জন্মের পর থেকে এই মসজিদটির নাম ‘পশ্চিম চিংড়াখালী মুন্সিবাড়ী জামে মসজিদ’ শুনে আসছি। তখন কাঁচা ঘর ছিল এই মসজিদটির। হঠাৎ নাম পরিবর্তনের খবর শুনে আমরা মর্মাহত হয়েছি। মসজিদ পরিচালনা কমিটির সদস্য মো. হাকিম মুন্সি (৬৫) বলেন, ‘আমার পূর্ব পুরুষদের দান করা মাত্র ৬ শতাংশ জমির উপর ১৮২০ সালে মসজিদটি প্রতিষ্ঠা করা হয়। পরে এই মসজিদের নামে আরো কিছু জমি দান করা হয়েছে। সকল কাগজপত্রে এটি ‘পশ্চিম চিংড়াখালী মুন্সিবাড়ী জামে মসজিদ’ লেখা আছে। হঠাৎ মসজিদের নাম পরিবর্তনের খবর আমরা কিছুতেই মেনে নিতে পারছি না।’

এ বিষয়ে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. শামীম হাওলাদার বলেন, আগে মসজিদটির কাঁচা ঘর ছিল। এলাকাবাসির ঐকান্তিক চেষ্টায় সেখানে টাইলস লাগানো হয়েছে। শতবছরের পুরাতন এই মসজিদটি আগের নামেই থাকুক এটাই মুসল্লিদের প্রত্যাসা। কিন্তু এলকার প্রভাবশালী কুয়েত প্রবাসি রফিকুল ইসলাম টিপু মুন্সি তার লোকজন নিয়ে এটির নাম পরিবর্তন করে ‘শেখ মহব্বত উল্লাহ জামে মসজিদ’ নামে একটি সাইনবোর্ড টানিযে দিযেছে। এর প্রতিবাদ করায় হামলা ও মিথ্যা মামলার শিকার হতে হচ্ছে আমাদের।

এবিষয়ে রফিকুল ইসলাম টিপু মুন্সির বক্তব্য নেয়ার চেষ্টা করেও তিনি কুয়েতে থাকায় তার কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here