রোহিঙ্গাদের অধিকার রক্ষায় মিয়ানমার ব্যর্থ: জাতিসংঘ মহাসচিব

নিজস্ব প্রতিনিধিঃজাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস বলেছেন, রোহিঙ্গাদের নাগরিক সুবিধা মিয়ানমারকে নিশ্চিত করতে হবে। জাতিসংঘ নয়, মিয়ানমারই রোহিঙ্গাদের অধিকার রক্ষায় ব্যর্থ।

সোমবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবির সরজমিনে পরিদর্শন করে তিনি এ কথা বলেন।

মিয়ানমার সেনাদের নিষ্ঠুর নিপীড়নের বর্ণনা শুনেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস বলেন, আমার হৃদয় ভেঙে গেছে। মিয়ানমার সেনাবাহিনী ও বৌদ্ধ মিলিশিয়াদের হত্যাযজ্ঞের মুখে পালিয়ে আসে রোহিঙ্গারা।
এসময় তিনি পাঁয়ে হেঁটে রোহিঙ্গাদের অস্থায়ী বাড়িঘর দেখেন। খোঁজ-খবর নেন রোহিঙ্গা শরনার্থীদের। এছাড়া জাতিসংঘ মহাসচিব ভিন্ন সাহায্য সংস্থার কার্যক্রমও পরিদর্শন করেন।

জাতিসংঘ মহাসচিব বলেন, গত ১১ মাস ধরে বিভিন্ন মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের উপর মিয়ানমারের চালানো নিপীড়নের কথা শুনেছি। এখন নিজে সরাসরি রোহিঙ্গাদের উপর মিয়ানমারের নিপীড়নের কথা শুনলাম।

রোহিঙ্গাদের শরীরে এখনো মিয়ানমারের সেনাদের চালানো নির্যাতনের ভয়াবহ চিহ্নের কথা উল্লেখ করে জাতিসংঘ মহাসচিব বলেন, রোহিঙ্গারা তাদের উপর চালানো নির্যাতনের যে বর্ণনা দিয়েছেন, তাতে আমার শরীর শিহরে উঠেছে। ভেঙেছে হৃদয়। একোন মানব সভ্যতা।

গুতেরেস বলেন, সব অধিকার দিয়েই রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠাতে চান তারা। এই জন্য বিশ্বসম্প্রদায়কে আরো জোরালো ভূমি রাখতে হবে।
তবে রোহিঙ্গাদের সহসাই ফেরত পাঠানো সম্ভব হবে না বলে মনে করছেন তিনি। রোহিঙ্গাদের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করে তাদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো সময় সাপেক্ষ।

রোহিঙ্গাদের বিশাল জনগোষ্ঠীকে আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ যেই মানবতা দেখিয়েছে, তা বিশ্বে নজিরবিহীন উল্লেখ করে গুতেরেস বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে জাতিসংঘ সবসময় বাংলাদেশের পাশেই থাকবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here