প্রিয়া সাহার মানবাধিকার সংগঠন ‘সুনাম’ থেকে সদস্যদের একযোগে পদত্যাগ

পিরোজপুর প্রতিনিধি:বাংলাদেশে ধর্মীয় সংখ্যালঘু নির্যাতন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডেনাল্ড ট্রাম্পের কাছে মিথ্যা অভিযোগ করায় প্রিয়া সাহার মানবাধিকার বিষয়ক সংগঠন ‘সুনাম’ থেকে পিরোজপুর সদর উপজেলা কমিটির সব সদস্য পদত্যাগ করেছেন।

রোববার (২১ জুলাই) দুপুরে পিরোজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করে সবাই একযোগে পদত্যাগের ঘোষণা দেন। এ সময় সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সুনামের পিরোজপুর সদর উপজেলা কমিটির সভাপতি মো. হাসিবুল ইসলাম।

লিখিত বক্তব্যে সভাপতি বলেন, বাংলাদেশ একটি সাম্প্রদায়িক সম্প্রতির দেশ। এ দেশে সব ধর্মের মানুষের শান্তিপূর্ণ সহবস্থান যে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে তা বিশ্বের কাছে রোল মডেল হিসেবে বিবেচিত হয়। সেখানে প্রিয়া সাহা ওরফে প্রিয় বালা বিশ্বাস মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নির্যাতনের বিষয়ে মিথ্যা, বানোয়াট ও কাল্পনিক তথ্য দিয়ে বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশকে হেয় প্রতিপন্ন করেছে। এ বিষয়টি আমরা মনে করছি দেশদ্রোহীতার শামিল।

হাসিবুল বলেন, প্রিয়া বালার বক্তব্য অসৎ, উদ্দেশ্য প্রণোদিত এবং সাম্প্রদায়িক সম্পর্ক নষ্টের উস্কানিমূলক অপচেষ্টা ছাড়া আর কিছুই নয় বলে মনে করছি। এ ছাড়া আমার বিভিন্ন সূত্রে ও সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী জানতে পেরেছি প্রিয়া সাহা এই বক্তব্য তার ব্যক্তিগত স্বার্থ হাসিলের জন্য দিয়েছেন। তাই প্রিয়া সাহা ওরফে প্রিয় বালা বিশ্বাসের পরিচালিত বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা-শারির অধীনে পরিচালিত সংখ্যালঘুদের মানবাধিকার সুরক্ষা বিষয়ক একটি সংগঠন সুরক্ষা, নাগরিক অধিকার ও মর্যাদা-(সুনাম) পিরোজপুর সদর উপজেলা কমিটি থেকে আমরা কমিটির ২৫ জন সদস্য তার বক্তব্যের প্রতিবাদ স্বরূপ কমিটি থেকে স্বেচ্ছায় সবাই পদত্যাগ করছি।

এ সময় প্রিয়া সাহার বক্তব্য বিষয়ে তাকে দেশে ফিরিয়ে এনে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করার দাবিও জানান তারা।

সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন পিরোজপুর সদর উপজেলা সুনাম কমিটির সহ-সভাপতি তামিম সরদার, মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক রেজওয়ান ইসলাম সাজন, সদস্য ওয়ালিউর রহমান রাফি, ফেরদৌস রহমান প্রমুখ।

এর আগে গতকাল শনিবার বিকেলে সুনাম জেলা কমিটি থেকে একই কারণে পদত্যাগ করেন জেলা কমিটির সদস্য, খালিদ আবু, পৌর কাউন্সিলর সাদুল্লাহ লিটন, দিপঙ্কর মাতা মিন্টু ও সিকদার চাঁন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here