বরিশালে আল্লাহর নামে ছেড়ে দেয়া গরু খেলেন ইউপি চেয়াম্যান’র ছেলে

নিজস্ব প্রতিনিধি:বরিশাল সদর উপজেলার ১নং রায়পাশা-কড়াপুর ইউনিয়নের ফকিরের হাট (উত্তর কড়াপুর) এলাকায় আল্লাহর নামে ছেড়ে দেয়া গরু (পশু) জবাই করে খেয়ে ফেলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। জবাই করা পশুর ২০ কেজি মাংস জব্দ করেছে এয়ারপোর্ট থানা পুলিশ। এ ঘটনায় কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি থানা পুলিশ। ঘটনাটির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ১নং রায়পাশা-কড়াপুর ইউনিয়ন চেয়াম্যান হাবিবুর রহমান খোকন। সুত্র মতে জানা যায়, ১নং রায়পাশা-কড়াপুর ইউনিয়নে ইউপি চেয়ারম্যানের বড় ছেলে সোহাগ ও ৬ নং ওয়ার্ডে মৃত ফরিদ এর দুই পুত্র রমিজ ও হাবিব ৯ জুলাই (মঙ্গলবার) গভীর রাতে পিকনিকের নাম করে রমিজের বাড়ির পিছনের বাগানে নিয়ে একটি কালো রংয়ের ষাড় গরু জবাই করেন। ঘটনাটি এতদিন ধামাচাপা থাকলেও মাংস বিক্রির টাকা নিয়ে রমিজের সাথে সোহাগের দ্বন্দ্ব হয়। এতে সোহাগ ক্ষিপ্ত হয়ে থানা পুলিশকে ফোন দিলে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এএসআই মহিদ্দিন। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে দ্রুত সটকে পড়েন রমিজ ও হাবিব। সোহাগের কথা মত এয়ারপোর্ট থানা পুলিশ একই এলাকার মন্নানের ঘরে থাকা ফ্রিজে ৭ কেজি মাংস ও রমিজের ঘরে থাকা ২০ কেজি মাংস জব্দ করেন। এ ঘটনায় এয়ারপোর্ট থানার ওসি এস.এম. মাহাবুব-উল-আলম বলেন, ঘটনাটি আমি শুনে দ্রুত পুলিশ পাঠিয়েছি। চেয়ারম্যান’র সাথে কথা হয়েছে তিনি বরিশালে এসে থানায় আসার কথা আছে। এদিকে ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান খোকন বলেন, ভাই আমি ঢাকা থেকে আসতেছি তবে ডিসি স্যার, ইউএনও স্যার ও থানার ওসি স্যারকে ফোন করে বলে দিছি। অন্য এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আল্লাহর নামে ছেড়ে দেয়া গরু তারা যেভাবে জবাই করে খেয়েছে এটা মানা যায় না। এটা আসলেই অন্যায় করেছে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here