সম্ভাবনাময় রাঙামাটির বাঁশশিল্প

রাঙামাটি প্রতিনিধিঃ সম্ভাবনাময় হয়ে উঠেছে রাঙামাটির বাঁশশিল্প। এই শিল্প বদলে দিয়েছে স্থানীয় আসবাব কারিগরদের জীবনমান। স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে বাঁশের আসবাব পৌছে যাচ্ছে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায়। হালকা, টেকসই, পরিববেশ বান্ধব ও স্বল্পমূল্যের হওয়ায় এর চাহিদা বাড়ছে দিন দিন।

নিপুণ হাতে তৈরি বাশেঁর আসবাব আর ঘর সাজানোর নানা সামগ্রী। এমন চিত্র চোখে পড়ে রাঙামাটির প্রায় সব আসবারের দোকানে।

ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী সংসারের প্রয়োজনীয় পণ্য থেকে সৌখিন পণ্য, কোনো কিছুরই কমতি নেই এখানে। স্থানীয় বাঁশ ভুদুম, যা অন্যান্য বাঁেশর চেয়ে মোটা ও লম্বা তা থেকে তৈরি হয় এসব আসবাব। তিন সপ্তাহ বিশেষ রাসায়নিকের ভিজিয়ে রেখে বাঁশের আসবাবের স্থায়িত্ব বাড়ানো হয়। বাঁশে দেয়া হয় বিভিন্ন আদল আর ডিজাইন।

বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা আশিকা, ২০০৮ সালে বাঁেশর আসবাব তৈরীর কাজ শুরু করে। মন মাতানো ডিজাইনের বাঁেশর আসবাবের মধ্যে রয়েছে শোফাসেট, চেয়ার, স্ট্যান্ড ল্যাম্পসহ নিত্য ব্যবহার্য্য নানা সামগ্রী। বাঁেশর ফার্নিচার হালকা, পরিবেশ বান্ধব ও দামে কম হওয়ায় এর চাহিদা বাড়ছে দিন দিন। যাচ্ছে জেলা বাইরেও।

পরিবেশ বান্ধব এসব আসবাব তৈরীতে প্রয়োজনীয় পৃষ্ঠপোষকতা পার্বত্য চট্টগ্রামের বাঁশ শিল্পকে আরো এগিয়ে নেবে বলে প্রত্যাশা সংশ্লিষ্টদের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here