কোটি ভক্তদের কাঁদিয়ে ক্রোয়েশিয়ার কাছে আর্জেন্টিনার হার

স্পোর্টস ডেস্ক: আর্জেন্টিনা ও আর্জেন্টিনার বাইরে পৃথিবীব্যাপী কোটি ভক্তদের কাঁদিয়ে ক্রোয়েশিয়ার কাছে পরাজিত হয়েছে আর্জেন্টিনা। চলতি রাশিয়া বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ক্রোয়েশিয়ার কাছে ৩-০ গোলে পরাজিত হয় আর্জেন্টিনা।

প্রথমার্ধ গোল শূণ্য শেষ হওয়ার পর শুধু দ্বিতীয়ার্ধেই তিন তিনটি গোল হজম করে জর্ম সাম্পাওলি’র শিষ্যরা। একের পর ভুল পাসিং, রক্ষণভাগের খেলোয়াড়দের ব্যর্থতা আর স্ট্রাইকারদের সুযোগ হারানোর দিনে দ্বিতীয় রাউণ্ডের টিকিট হারাতে বসেছে মেসি-আগুয়েরা-হিগুয়েনেরা।

যে ভুলের কোন খেসারত নেই!
দ্বিতীয়ার্ধের মাত্র অষ্টম মিনিটের মাথায় আর্জেন্টিনার জালে প্রথমবারের মতো বল জড়ায় ক্রোয়েশিয়া। আর্জেন্টিনার গোলরক্ষক ক্যাবালেরো’র ভুলের সদ্ব্যবহার বেশ ভালোভাবেই নিয়েছেন অ্যান্টে রেবিক। ফলে নিজেদের ডি-বক্সের ভেতরে ক্রোয়েশিয়ার স্ট্রাইকারদের সামনে বল চালাচালির চরম মূল্য দিতে হয় আর্জেন্টিনাকে। পুরো ম্যাচের এক নিয়মিত দৃশ্য ছিল এটি। যতটুকু সময় আর্জেন্টিনার পায়ে বল ছিল তার বেশিরভাগই ছিল রক্ষণভাগের খেলোয়াড় আর গোলরক্ষকের মধ্যেকার বল পাসিং।

খেলায় সমতা আনতে মরিয়া আর্জেন্টিনা দ্বিতীয় গোলটি হজম করে ৮০ মিনিটে। ক্রোয়েশিয়ান অধিনায়ক লুকা মড্রিকের ডি-বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া শট রুখে দিতে পারেননি ক্যাবালেরো। ফলাফল ২-০ তে এগিয়ে যায় আর্জেন্টিনা। আর দুর্দান্ত এই গোলের জন্য লুকা মডরিক নির্বাচিত হন ম্যাচের সেরা খেলোয়াড়।

খেলার ভাগ্য যখন এক প্রকার নিশ্চিত তখন জয়ের ব্যবধানটা আরও এক দফা বাড়িয়ে দেন ইভান রেকেটিক। একজন গোলরক্ষককে কীভাবে পরাস্ত করা যায় তার নজির স্থাপন করে আস্তে ধীরে দেখেশুনে আর্জেন্টিনার কফিনে শেষ পেরেকটি ঠোকেন এই মিডফিল্ডার। তবে মূল কারিশমা করেছেন সতীর্থ ম্যাটেও কোভাইক। নির্ধারিত ৯০ মিনিটের পর অতিরিক্ত সময়ের প্রথম মিনিটে সর্বশেষ এই গোল হজক করে আর্জেন্টিনা।

ক্রোয়েশিয়া এই জয়ের মধ্যে দিয়ে নিশ্চিত করেছে নিজেদের দ্বিতীয় রাউন্ডের টিকিট। আর অনিশ্চিত হয়ে পরেছে আর্জেন্টিনার দ্বিতীয় রাউণ্ডে যাওয়ার সম্ভাবনা।

নাইজেরিয়া এবং আইসল্যান্ডের মধ্যেকার খেলার ফলাফল এবং নাইজেরিয়ার সাথে নিজেদের খেলার ওপর ঝুলে আছে আর্জেন্টিনার দ্বিতীয় রাউন্ডের ভাগ্য।

তবে আজ নিজেদের ভুলে সবাইকে কাঁদিয়েই মাঠ ছেড়েছে আর্জেন্টিনা। সাইড লাইনে থেকে কেদেছেন দলের কোচ সাম্পাওলো। গ্যালারিতে বসে কেদেছেন দেশটির কিংবদন্তি খেলোয়াড় দিয়েগো ম্যারাডোনা। আর মাঠে ও মাঠের বাইরে টিভি সেটের সামনে বসে কেদেছেন কোটি কোটি দর্শক।

আর্জেন্টিনা যদি শেষ পর্যন্ত গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নেয় তাহলে তা হবে বিগত ৬০ বছরের মধ্যে প্রথম ঘটনা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here