তালেবানের সঙ্গে আলোচনায় রাজি যুক্তরাষ্ট্র, তবে…

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:শান্তি আলোচনায় অংশ নিলে আফগানিস্তানে মার্কিন ও আন্তর্জাতিক বাহিনীর ভূমিকা নিয়ে তালেবানের সঙ্গে ট্রাম্প প্রশাসন আলোচনায় রাজি বলে জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও।

তালেবান বিদ্রোহী ও আফগান সেনারা পাশপাশি দাঁড়িয়ে ঈদের নামাজ পড়ছে- এমন ছবি দেখে অণুপ্রাণিত হয়ে ১৭ বছর ধরে চলা আফগান যুদ্ধ অবসানে দেশটির সরকার ও তালেবানকে প্রস্তাব দেয় মার্কিন এই শীর্ষ কূটনীতিক।

আফগান প্রেসিডেন্টের বরাত দিয়ে এক বিবৃতিতে পম্পেও বলেন, ‘আফগান জনগণের উদ্দেশে দেয়া বিবৃতিতে আশরাফ ঘানি জোর দিয়ে বলেছেন, শান্তি আলোচনায় আন্তর্জাতিক পক্ষগুলো ও বিদেশী বাহিনীর ভূমিকা কী হবে- তা-ও অন্তর্ভুক্ত করা হবে।’

এতে আরও বলা হয়, ‘আলোচনায় সমর্থন, ক্ষেত্র তৈরি ও অংশ নিতে যুক্তরাষ্ট্র প্রস্তুত।’

তালেবান বরাবরই বিদেশী বাহিনী প্রত্যাহারের বিষয়ে নিজেদের অটল অবস্থান জানিয়ে আসছে। যতদিন আফগানিস্তানের মাটিতে বিদেশী বাহিনী থাকবে, ততদিন শান্তি সম্ভব নয় বলে মনে করে সংগঠনটি।

তবে যুক্তরাষ্ট্র মনে করে, যেকোনো শান্তি আলোচনায় অবশ্যই আফগান সরকারকে অন্তর্ভুক্ত থাকতে হবে। অবশ্য গত সপ্তাহে তালেবান নেতা হিবাতুল্লাহ আখুনজাদা আফগান সরকারকে বাদ দিয়ে সরাসরি তালেবানের সঙ্গে আলোচনার জন্য ওয়াশিংটনের প্রতি আহ্বান জানান।

প্রসঙ্গত, ২০০১ সালে আফগানিস্তানে হামলা করে তালেবান সরকারকে উৎখাত করে মার্কিন বাহিনী। ১৭ বছর ধরে চলছে যুদ্ধ। সম্প্রতি তালেবানের সঙ্গে মার্কিন সমর্থিত আফগান সরকারের একটি আলোচনার পরিবেশ দেখা দিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here