ড্র দিয়ে শুরু ব্রাজিলের ‘মিশন হেক্সা’

স্পোর্টস ডেস্ক : প্রথমার্ধে এক গোলে এগিয়ে থাকলেও শেষ পর্যন্ত ড্র দিয়েই শুরু হলো ব্রাজিলের ‘মিশন হেক্সা’। ষষ্ঠ বারের মতো শিরোপা জেতার লক্ষ্যে চলতি রাশিয়া বিশ্বকাপে আসা ব্রাজিলকে তাই প্রথম ম্যাচে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে নিতে হলো সুইজ্যারল্যান্ডের সাথে।

ই-গ্রুপের দ্বিতীয় ম্যাচে নিজেদের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হয় সুইজারল্যান্ড ও ব্রাজিল। শুরুটা বেশ ভালো হয় ব্রাজিলের। বলা যায় প্রথমার্ধ যেন ব্রাজিলেরই ছিলো।

ম্যাচের মাত্র ১১ মিনিটে অল্পের জন্য গোল না পেলেও ১৯ মিনিটে কাংখিত গোলের দেখা পায় ব্রাজিল। মিড ফিল্ডার কুটিনহো’র গোলে প্রথমার্ধেই লিড পায় ব্রাজিল। এছাড়াও নেইমার-মার্সেলো আর পলিনহোদের মুহুর্মুহু আক্রমণে হিমশিম খেতে হয় সুইস প্রহরীদের।

তবে প্রথমার্ধ যদি ব্রাজিলের হয় তাহলে দ্বিতীয়ার্ধ ছিল সুইজারল্যান্ডের। ম্যাচে সমতা আনার পাশাপাশি ব্রাজিলকে ঐ ১ গোলেই আটকে রাখতে সমর্থ হয় সুইস খেলোয়াড়েরা। দ্বিতীয়ার্ধের মাত্র পাঁচ মিনিটের মাথায় সুইজারল্যান্ডের জন্য ‘সোনার হরিণ’ এনে দেন মিডফিল্ডার স্টিভেন জুবের। জার্দান শাকেরী’র কর্ণার ক্রস ব্রাজিলিয়ান রক্ষকদের ফাঁকি দিয়ে সরাসরি মাথায় আসে জুবেরের। আর সেই সুযোগ হাতছাড়া করার ধৃষ্টতা করেননি জুবের। এমন সরাসরি হেডে রীতিমত অসহায় করে দেন ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষক অ্যালিসন বেকারকে।

ব্রাজিলের সাথে ড্র এর ম্যাচে সুইজারল্যান্ডের আরেক নায়ক গোলরক্ষক ইয়ান সমার। ১১ মিনিটে পলিনহোর পায়ের খোঁচায় আসা বল আঙ্গুলের ডগায় ঢেকিয়ে দেন তিনি। এছাড়াও ৭৮ তম মিনিটে মার্সেলোর বাড়িয়ে দেওয়া বল থেকে নেওয়া নেইমারের দূরপাল্লার শটও রুখে দেন সমার। একই ভাবে ৮৮ মিনিটে গোল পোস্টের খুব কাছ থেকে নেওয়া নেইমারের হেড আটকে দেন সুইজারল্যান্ডের এই গোলরক্ষক। নেইমারের পাশাপাশি সমার ব্যর্থ করেন আরেক ব্রাজিলিয়ান রবার্তো ফিরমিন্নোকেও। ৯০ তম মিনিটে নেইমারের ক্রস থেকে নেওয়া ফিরমিন্নোর হেড নিজ হাতে শেষ বারের মতো রুখে দিয়ে ব্রাজিলকে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে নিতে বাধ্য করেন এই সুইস গোলরক্ষক।

তবে দুর্দান্ত শটে গোল করার জন্য ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হয়েছেন ব্রাজিলের ফিলিপ কুটিনহো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here